এবার দোলে বিশ্বভারতীতে হচ্ছে না বসন্তোৎসব! ক্রুদ্ধ শিক্ষামন্ত্রী

এবার দোলে বিশ্বভারতীতে হচ্ছে না বসন্তোৎসব! ক্রুদ্ধ শিক্ষামন্ত্রী

পৌষমেলার পর এবার বসন্তোৎসব ৷ ফের বিতর্কে বিশ্বভারতী ৷

  • Share this:

#কলকাতা: পৌষমেলার পর এবার বসন্তোৎসব ৷ ফের বিতর্কে বিশ্বভারতী ৷ দোলের আগেই শান্তিনিকেতনে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বসন্তোৎসব পালনের সিদ্ধান্ত বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের ৷ একইসঙ্গে বিশৃঙ্খলা এড়াতে সাধারণের প্রবেশও এবার নিয়ন্ত্রণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর ৷বিশ্বভারতীর ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে শোরগোল ৷ অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, দোল পূর্ণিমার দিন নয়, বরং তার আগে বা পরে কোনও পূর্ণিমার দিন পালন করা হবে ৷ চলতি বছরে দোল উৎসব ১০ মার্চ ৷ সূত্রের খবর, সম্ভবত তার আগেই ১৮ বা ২৫ ফেব্রুয়ারি বসন্ত বন্দনার আয়োজন করবে বিশ্বভারতী ৷ অর্থাৎ ১৯ বা ২৬ ফেব্রুয়ারি শান্তিনিকেতনে পালিত হবে বসন্তোৎসব ৷ অর্থাৎ নির্ধারিত সময়ের দিন দশেক আগেই দোল উৎসবে মাতবে শান্তিনিকেতন ৷ বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের এহেন সিদ্ধান্তের কথা জানার পর প্রবল ক্রুদ্ধ শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷ শান্তিনিকেতনের অন্যতম মূল আকর্ষণ ও ঐতিহ্যবাহী এই অনুষ্ঠানের দিনক্ষণ বদলে সমালোচিত বিশ্বভারতী ৷ শুধু দিনবদলই নয়, এবারের বসন্তোৎসবে শান্তিনিকেতনে বহিরাগতের প্রবেশ নিষেধ ৷ এই উৎসব শুধুমাত্র বিশ্বভারতীর পড়ুয়া ও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে ৷ বিশ্বভারতী সূত্রে খবর, গত বছর বসন্তোৎসবে ভিড়ের চাপে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় ৷ অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে ৷ শুধু ২০১৯ সালেই নয়, বেশ কয়েক বছর ধরেই শান্তিনিকেতনের বাসিন্দারা বসন্তোৎসবে অবাঞ্চিত ভিড়ের অভিযোগ করে আসছেন ৷ তাদের অভিযোগ, বসন্তোৎসবের নামে সেখানে পৌঁছে অনেকেই এমন অশালীন কাজ করছেন, যা কবিগুরুর শান্তিনিকেতনের পরিবেশকে নষ্ট করে দিচ্ছে ৷ বছর বছর শুধু মানুষের ভিড় নয়, বাড়ছে গাড়ির যাতায়াতও ৷ যা শান্তিনিকেতনের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকেও দূষিত করছে ৷ সবমিলিয়ে চলতি বছর থেকে কবিগুরুর বিশ্বভারতীতে বদলে যাচ্ছে বসন্তোৎসব পালনের রীতি ৷

First published: January 20, 2020, 5:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर