Home /News /south-bengal /
Tarantula : মাকড়সা আতঙ্ক! কোথা থেকে এল বিষাক্ত বিদেশি ট্যারেন্টুলা! নতুন রোগের আশঙ্কা

Tarantula : মাকড়সা আতঙ্ক! কোথা থেকে এল বিষাক্ত বিদেশি ট্যারেন্টুলা! নতুন রোগের আশঙ্কা

Tarantula : বাগানে ঘুরছে বিরল প্রজাতির বিষাক্ত ট্যারেন্টুলা ! কোথা থেকে এল এই বিদেশি মাকড়সা! ছড়াচ্ছে আতঙ্ক

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা: মাকড়সা (Tarantula ) নিয়ে মানুষের মধ্যে সব সময় একটা আতঙ্ক কাজ করে। যদিও মাকড়সা কিন্তু অনেক পোকা বা জীবানু খেয়ে ফেলে পরিবেশকে সুস্থ রাখার কাজ করে। তবে কিছু বিশেষ ধরণের মাকড়সার লালা থেকে কিছু রোগ ছড়াতেও দেখা যায়। এমনকি ট্যারেন্টুলার কামড়ে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হয়েছে। তাই মাকড়সা দেখলেই তৈরি হয় আতঙ্ক। সম্প্রতি দেগঙ্গায় তৈরি হয়েছে নয়া আতঙ্ক।

    দেগঙ্গায় এক ব্যক্তির বাড়িতে হদিশ মিলল ট্যারেন্টুলার (Tarantula )। আর সেটি বোতলবন্দি করলেন ওই বাড়িরই গৃহকর্ত্রী। এই ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। যদিও ওই বিষাক্ত ট্যারেন্টুলা কাউকে কামড়ায়নি বা কেউ স্পর্শ করেননি। তবে এই ঘটনার জেরে ট্যারেন্টুলা-আতঙ্ক ছড়িয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে।

    বন দফতর সূত্রে খবর, দেগঙ্গার কার্তিকপুর এলাকার বাসিন্দা অনুপ নন্দীর বাড়িতে ফুলের গাছ সংলগ্ন মাটির ভিতর থেকে একটি ট্যারেন্টুলা ধরা পড়ে। বারাসত বন দফতরের তরফে ট্যারান্টুলাটি  (Tarantula )উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়। এটি অস্ট্রেলিয়ান ট্যারান্টুলা বলে জানিয়েছেন বনকর্তারা।

    দেখুন মাকড়সার ভিডিও: ট্যারেন্টুলা আতঙ্ক, বাগানের মধ্যে বিষাক্ত মাকড়সার দেখা

    স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অনুপ নন্দীর স্ত্রী ডলি নন্দী বাড়িতে গাছ পরিচর্যা করেন। অন্যান্য দিনের মতো এদিন সকালেও ফুলের গাছ পরিচর্যা করতে যান ডলিদেবী। সেই সময়ই বাড়ির মধ্যে উঠোনের মাটি খুঁড়তে গিয়ে লোমযুক্ত কালো রঙের অদ্ভুত ধরনের একটি বড় মাকড়সা দেখতে পান ডলিদেবী। অদ্ভুত ধরনের বড় মাকড়সাটি দেখে তিনি আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এরপর ডলি নন্দীর ছেলে অরিজিৎ নন্দী গুগল ঘেঁটে মাকড়সার ছবি দেখে জানতে পারেন, এটি বিদেশি ট্যারেন্টুলা।

    আরও পড়ুন: চালু হল এক টাকার স্কুল ! রোজ বাড়ছে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা! অভিনব উদ্যোগে প্রশংসা !

    অরিজিৎ নন্দীর কথায়, “গুগলে ট্যারেন্টুলার ছবি ঘেঁটেই জানতে পারি, এটি বিদেশি ট্যারেন্টুলা (Tarantula )। এটির কামড়ালে এবং সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসা না হলে প্রাণহানিও ঘটতে পারে।” বাড়ির মধ্য থেকে বিদেশি ট্যারেন্টুলা ধরা পড়ায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে নন্দী পরিবারে। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় বারাসত রেঞ্জের বন দফতরে। কিন্তু বন দফতরের কর্মীরা আসতে দেরি করায় ডলি নন্দী নিজেই ঝুঁকি নিয়ে ট্যারেন্টুলাটি বোতলবন্দি করেন। পরে বন দফতরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ট্যারেন্টুলাটি উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। এদিকে, বাড়ির ভিতর থেকে ট্যারেন্টুলা উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় কার্তিকপুর এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যেও আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

    রুদ্র নারায়ন রায়

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Deganga, Tarantula

    পরবর্তী খবর