• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • SUVENDU SECURITY DEATH INVESTIGATION CID TEAM VISITED KANTHI NEAR SUVENDU ADHIKARI HOUSE SANJ

Suvendu Security Death Investigation : ফের শান্তিকুঞ্জের সামনে সিআইডি টিম! শুভেন্দু অধিকারীর রক্ষী-আবাসে হল ভিডিওগ্রাফি

শুভেন্দুর বাড়ির সামনে CID

Suvendu Security Death Investigation | রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর প্রাক্তন দেহরক্ষীর মৃত্যু-তদন্তে ফের অধিকারী বাড়ির সামনে পৌঁছল CID-টিম।

  • Share this:

#কাঁথি : রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর প্রাক্তন দেহরক্ষীর মৃত্যু-তদন্তে ফের অধিকারী বাড়ির সামনে পৌঁছল সিআইডি-টিম। শান্তিকুঞ্জের উল্টো দিকের গ্যারেজ বাড়িতে আজ ফের সি আই ডি টিম এসে পৌঁছয়। শনিবার কাঁথিতে শুভেন্দুর বাড়ি ‘শান্তিকুঞ্জ’-এর উল্টোদিকে অবস্থিত বাড়িটিতে যান তদন্তকারীরা। ওই বাড়িটিতেই থাকেন নিরাপত্তাররক্ষীরা। ওই আবাসস্থলের ভিডিয়োগ্রাফি করেন তদন্তকারীরা। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন শুভেন্দুর ভাই তথা তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী।

কাঁথির অধিকারী পাড়ায় গিয়ে যে বাড়িতে শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তারক্ষী শুভব্রত চক্রবর্তী থাকতেন, সেই বাড়িতেই তদন্তের কাজে এসে ঢোকেন সিআইডি দল। চারজনের এই প্রতিনিধিদল এদিনও সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারীর কথা বলেছেন বলে সুত্রের খবর। উল্লেখ্য, গত পরশু রাতে জেলা পুলিশ লাইনে শুভব্রত চক্রবর্তীর সঙ্গে তৎকালীন যারা কাজ করতেন সেইসব নিরাপত্তারক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে সিআইডির আধিকারিকরা। সেখান থেকে তথ্য সংগ্রহ করে আজকের তদন্তে এলেন তাঁরা এমনটাই সূত্রের খবর। এদিনের ঝটিকা সফরে সেই সময়ের দুজন নিরাপত্তারক্ষীদেরও সি আই ডি সঙ্গে এনেছে।

এদিকে এদিন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী নিউজ 18 বাংলাকে ফোনে জানান, তিনি সম্পূর্ণ সহযোগিতা করছেন সিআইডির সঙ্গে। তবে তাঁর অভিযোগ, সিআইডি-র তরফে কাঁথি থানার আই সি কে তাঁদের আগে জানানোর কথা বলা হলেও। কাঁথি থানার তরফে তাঁদের কিছু জানানো হয়নি এদিন। তাই সিআইডি দল আসার খবর পেয়ে তিনি তাঁর অফিস থেকে এলাকায় এসে পৌঁছন। দিব্যেন্দু জানান, তিনি সিআইডির আধিকারিকদের অনুরোধ করেছেন এরপরে তদন্তে এলে তাঁকে যেন দু'দিন আগে জানানো হয়। তবে একইসঙ্গে অধিকারী পরিবারের তরফে তদন্তে সবরকম সাহায্যের আশ্বাসও দেন দিব্যেন্দু ।

শুভেন্দুর নিরাপত্তারক্ষী শুভব্রত যে ঘরে থাকতেন, সেই ঘরটিও সিআইডি আধিকারিকরা খুঁটিয়ে পরীক্ষা করেন শনিবার। প্রায় দেড় ঘণ্টা ওই বাড়িটি ঘুরে দেখেন। সেইসঙ্গে করা হয় গোটা পর্বের ভিডিয়োগ্রাফিও। ২০১৮-র ১৩ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ ‘শান্তিকুঞ্জ’-এর সামনে অবস্থিত নিরাপত্তারক্ষীদের ওই আবাসস্থলেই পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে মাথায় গুলিবিদ্ধ হন শুভেন্দুর তৎকালীন দেহরক্ষী শুভব্রত। পরের দিনই মৃত্যু হয় তাঁর। সেই ঘটনার প্রায় আড়াই বছরেরও বেশি সময় পর গত ৭ জুলাই শুভব্রতকে ষড়যন্ত্র করে খুন করা হয়ে থাকতে পারে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন তাঁর স্ত্রী সুপর্ণা। সেই তদন্তভার নিয়েছে রাজ্য গোয়েন্দা বিভাগ সিআইডি।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: