দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

তৃণমূল নেতাদের ধার রাখতে চান না শীলভদ্র, ফেরাতে শুরু করলেন টাকা

তৃণমূল নেতাদের ধার রাখতে চান না শীলভদ্র, ফেরাতে শুরু করলেন টাকা
ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত৷ Photo-Facebook
  • Share this:

#ব্য়ারাকপুর: দলের সঙ্গে দুরত্ব তৈরি হয়েছে৷ আর নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়াবেন না বলে জানিয়েও দিয়েছেন৷ এবার দলীয় সতীর্থদের আর্থিক ঋণ শোধ করতে শুরু করলেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত৷

২০১৯ সালে শীলভদ্র দত্তের লিভার প্রতিস্থাপন হয়৷ সেই সময় বিপুল অর্থের প্রয়োজন ছিল৷ অর্থের সংস্থান করতে সেই সময় ব্যারাকপুরের বিধায়কের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন বেশ কিছু তৃণমূল নেতা৷ অনেকেই আর্থিক সাহায্য করেছিলেন তাঁকে৷ সবমিলিয়ে যার পরিমাণ কমবেশি ১২ লক্ষ৷ সেই টাকাই এবার ফেরাতে শুরু করলেন শীলভদ্র৷

সূত্রের খবর, ব্যারাকপুর পুরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস শীলভদ্র দত্তকে ২ লক্ষ টাকা ধার দিয়েছিলেন৷ এ দিনই সেই টাকা চেক মারফত ফেরত পাঠান শীলভদ্র বাবু৷ কিন্তু উত্তমবাবু জানান তিনি ওই অর্থ তিনি নগদ দিয়েছিলেন শীলভদ্র দত্তকে৷ ফলে তা নগদেই ফেরত চান৷ এর পর ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তুলে উত্তমবাবুকে নগদে সেই টাকা ফেরত পাঠান শীলভদ্র৷

জানা গিয়েছে, যে কয়েকজন তৃণমূল নেতার থেকে টাকা নিয়েছিলেন, তাঁদের প্রত্যেকের টাকাই আগামী কয়েকদিনে তিনি ফিরিয়ে দেবেন জানিয়েছেন শীলভদ্র দত্ত৷ তিনি বলেন, 'যাঁদের থেকে চিকিৎসার টাকা নিয়েছি, তাঁদের প্রত্যেকের টাকাই আমি ফেরত দিয়ে দিতে চাই৷ কারও দেনা রাখতে চাই না৷' সেই তালিকায় রয়েছেন নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, খাদ্যমন্ত্রী ও জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলা পরিষদের সদস্য নারায়ণ গোস্বামীর মতো নেতারা৷

তৃণমূলের যে নেতারা প্রকাশ্য দলের বিরোধিতা করছেন, তাঁদের অনেকেরই বিজেপি যোগের কথা শোনা যাচ্ছে৷ যদিও শীলভদ্র দত্তের ক্ষেত্রে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে৷ তবে বিজেপি নেতা মুকুল রায় কয়েকদিন আগেও জানিয়েছেন, শীলভদ্র দত্তের সঙ্গে তাঁর নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে৷

প্রশান্ত কিশোর এবং তাঁর দলের কাজকর্ম নিয়ে অক্টোবর মাসেই প্রকাশ্যে ক্ষোভপ্রকাশ করেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক৷ মুকুল রায় দল ছাড়ার পর থেকেই তিনি কোণঠাসা ছিলেন৷ শীলভদ্রের মান ভাঙাতে দিন কয়েক আগে থেকে সচেষ্ট হয় তৃণমূল নেতৃত্ব৷ প্রথমে পিকে-র দলের দুই প্রতিনিধি, পরে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক নিজে তাঁর বাড়িতে গিয়ে শীলভদ্র দত্তের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু কাজের কাজ হয়নি৷ শীলভদ্র নিজের অবস্থানে অনড় থেকেছেন৷ এবার দলীয় সতীর্থদের টাকা ফেরানোর উদ্যোগ নিয়ে নিজের অবস্থান আরও স্পষ্ট করে দিলেন তিনি৷

Rajorshi Roy

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 17, 2020, 7:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर