Home /News /south-bengal /
Viral| Rare Operation|| শ্বাসনালীতে আটকে জ্যান্ত কই! রক্তারক্তি কাণ্ড! বিরল অস্ত্রপচারে পুনর্জন্ম যুবকের

Viral| Rare Operation|| শ্বাসনালীতে আটকে জ্যান্ত কই! রক্তারক্তি কাণ্ড! বিরল অস্ত্রপচারে পুনর্জন্ম যুবকের

Rare operation in Chandipur multi specialty hospital: ৪০ বছরের তাপস মাইতি মাছ ধরতে গিয়ে দাঁতে চেপে রাখা জ্যান্ত কই মাছ গলার শ্বাসনালীতে ঢুকে যায় আচমকাই। এবং সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় শ্বাসকষ্ট, প্রবল যন্ত্রণা আর রক্তপাত।

  • Share this:

    #চন্ডীপুর: মাছ খেতে গিয়ে গলায় আকছারই কাঁটা আটকায়। একটু কষ্ট হলেও, তারপর আপনা আপনিই সব ঠিক হয়ে যায়। কিন্তু আস্ত জ্যান্ত কই মাছ যদি গলার শ্বাসনালিতে আটকে যায়, তখন কি অবস্থা হয় ? সেই রকমই ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুর থানার লদিপুর গ্রামে।

    ৪০ বছরের তাপস মাইতি মাছ ধরতে গিয়ে দাঁতে চেপে রাখা জ্যান্ত কই মাছ গলার শ্বাসনালীতে ঢুকে যায় আচমকাই। এবং সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় শ্বাসকষ্ট, প্রবল যন্ত্রণা আর রক্তপাত। পরিবারের লোকজন ও পাড়া প্রতিবেশী তড়িঘড়ি করে তাপসকে নিয়ে যায় চন্ডীপুর স্পেশ্যালিটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে। আপৎকালীন অবস্থায় দ্রুত চারজন চিকিৎসক এবং নার্সদের সফল অস্ত্রপচারে প্রায় ২ ঘণ্টার চেষ্টায় যুবকের গলা থেকে কই মাছটি বের করা হয়। প্রান ফিরে পায় ওই যুবক।

    আরও পড়ুন: কোটি কোটির সোনা-হীরে লুঠ, তদন্তে তাক লাগাল মুর্শিদাবাদ জেলা পুলিশ

    সিনিয়র সার্জেন ডাঃ রত্নদীপ ঘোষেরর তত্বাবধানে এবং ডাক্তার একে গুড়িয়া ও অর্থপেডিক সার্জেন ডাক্তার কানাইলাল জানা, অ্যানাস্থেসিস্ট ডাক্তার পার্শ্বপ্রতিম দাসের সফল প্রচেষ্টায় ট্রেকিয়াস্ট্রোমি করে গলা থেকে আস্ত কই মাছটিকে বের করা হয়। বর্তমানে রোগীকে ICU-তে রাখা হয়েছে এবং রোগীর অবস্থা স্থিতিশীল। ডাক্তারদের কথায়, যদি আপদকালীন ভাবে অস্ত্রপ্রচার না করা হতো, তা হলে রোগীর প্রান ফেরানো যেত না।

    আরও পড়ুন: সিবিআই দফতরে নয়, মা ফ্লাইওভার থেকে কোথায় পৌঁছলেন অনুব্রত মণ্ডল? বাড়ছে জল্পনা...

    হাসপাতাল অধিকর্তা পবিত্র জানা বলেন, ঘটনাটি বেশ বিরলই। আমাদের ডাক্তার, নার্সদের প্রচেষ্টা যে সফল হয়েছে এবং তাতে একটি পরিবার প্রিয়জনের প্রান ফিরে পেল সেটা অত্যন্ত গর্বের। সেই সঙ্গে বর্তমান সময়ে চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নততর হওয়ায় কাজটি করতে আমাদের সুবিধে হয়েছে। চন্ডীপুর সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালের পরিষেবায় রোগী সুস্থ হয়ে ওঠায় খুশি পরিবার পরিজন সহ প্রতিবেশি সকলেই।

    SUJIT BHOWMIK

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: West Medinipur

    পরবর্তী খবর