Home /News /south-bengal /
Purba Bardhaman News: বিদ্যুত নেই কেন? প্রশ্ন তুলে বেধড়ক মারধর কর্মীদের, ভাঙচুর কিয়ক্সে

Purba Bardhaman News: বিদ্যুত নেই কেন? প্রশ্ন তুলে বেধড়ক মারধর কর্মীদের, ভাঙচুর কিয়ক্সে

People attacked Electricity supply kiosk

People attacked Electricity supply kiosk

আহত পাঁচজনকে চিকিৎসার জন্য বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: বিদ্যুৎ নেই কেন? এই প্রশ্ন তুলে বিদ্যুৎ অফিসের কিয়স্ক এ ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হল। অফিসেও ঢুকে হামলা চালানোর  অভিযোগ উঠল একদল যুবকের বিরুদ্ধে।

রবিবার বিকালে বর্ধমান শহরের নতুনগঞ্জ এলাকার সেক্টর ৪ এর বিদ্যুৎ অফিসে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে বর্ধমান শহরে। বিদ্যুত দফতরের অফিসে ভাঙচুর ও বিদ্যুত দফতরের কর্মীদের মারধরে যুক্তদের হদিশ পেতে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

অভিযোগ, বিদ্যুৎ নেই কেন এই অভিযোগ এনে বর্ধমান পুরসভার ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের পাশিখানা এলাকার একদল যুবক বিদ্যুৎ অফিসে চড়াও হয়। তারা বিদ্যুৎ বিভাগে অফিসে ঢুকতে যায়।তবে রবিবার ছুটির দিন থাকায় বিদ্যুৎ অফিস বন্ধ ছিল। মোবাইল ভ্যানের কর্মীরা ছাড়া সেভাবে অন্য কোনও কর্মীর উপস্থিতিও অফিসে ছিল না। ওই উত্তেজিত যুবকরা বিদ্যুৎ দপ্তরে ঢুকতে না পেরে সেই অফিসের নিচে থাকা একটি কিয়স্ককে ভাঙচুর চালানোর জন্য বেছে নেয়।

আরও পড়ুন - হাতে হাতে জাতীয় পতাকা, বার্মিংহ্যামে সোনা অচিন্ত্যর, হাজার মাইল দূরে রাত জাগল হাওড়া, রইল ভিডিও

সেই সময় সেখানে মোবাইল ভ্যানের ডিউটিতে থাকা বিদ্যুত দফতরের পাঁচ জন কর্মীকে তারা মারধর করে বলেও অভিযোগ। তাদের মধ্যে একজনের আঘাত গুরুতর বলে জানা গেছে। আহত কর্মীদের চিকিৎসার জন্য বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। গোটা ঘটনায় হতবাক বিদ্যুৎ দফতরের কর্মীরা।

আরও পড়ুন - Commonwealth Games Gold Medal: শৈশবে বাবাকে হারিয়ে কঠিন লড়াই, ভারোত্তলনে সোনা জিতলেন বাংলার অচিন্ত্য শিউলি

সেক্টর ৪ এর স্টেশন ম্যানেজার শুভদীপ রায় জানান,পাশি খানা এলাকায় একটি ট্রান্সফর্মারে সমস্যা ছিল । তবে সেটা আমাদের জানা ছিল না। আমাদের জানালে আমরা ব্যবস্থা নিতে পারতাম।

আহত পাঁচজনকে চিকিৎসার জন্য বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যারা বিদ্যুৎ বিভাগে হামলা চালাতে এসেছিল এবং কিয়স্ক ভাঙচুর করেছে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানানো হবে বিদ্যুৎ বিভাগের পক্ষ থেকে।

বিদ্যুত দফতরের কর্মীরা বলেন, মানুষ বড় অসহিষ্ণু হয়ে উঠছে। যান্ত্রিক ত্রুটি ছাড়া এখন লোড শেডিং হয় না বললেই চলে। অথচ এলাকায় ট্রান্সফর্মার খারাপ সেকথা না জানানোর বদলে উত্তেজিত যুবকরা অযথা ভাঙচুর চালালো, মারধর করলো।

Saradindu Ghosh
Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Electricity, Purba bardhaman

পরবর্তী খবর