Home /News /south-bengal /

Strict measures by Police in Bardhaman: রাস্তায় নেমে দোকান বন্ধ করতে বাধ্য করল পুলিশ, কেন?

Strict measures by Police in Bardhaman: রাস্তায় নেমে দোকান বন্ধ করতে বাধ্য করল পুলিশ, কেন?

নির্দেশ কার্যকর করতে শনিবার সকাল থেকেই পথে নামল পুলিশ

নির্দেশ কার্যকর করতে শনিবার সকাল থেকেই পথে নামল পুলিশ

Strict measures by Police in Bardhaman: অনেকেই প্রশাসনিক নির্দেশ উপেক্ষা করে বা তা জানা না থাকায় দোকান খুলেছিলেন। সেই সব দোকানের ঝাঁপ নামিয়ে দেয় বর্ধমান থানার পুলিশ

  • Share this:

বীরহাটা : বর্ধমানে রাস্তায় নেমে দোকান বন্ধ করল পুলিশ। করোনার সংক্রমণ রুখতে বর্ধমান শহরে দোকান খোলা-বন্ধ বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। বর্ধমানের বি সি রোড, বড়বাজার-সহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলিতে সপ্তাহে তিন দিন দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। সেই নির্দেশ কার্যকর করতে শনিবার সকাল থেকেই পথে নামল পুলিশ। অনেকেই প্রশাসনিক নির্দেশ উপেক্ষা করে বা তা জানা না থাকায় দোকান খুলেছিলেন। সেই সব দোকানের ঝাঁপ নামিয়ে দেয় বর্ধমান থানার পুলিশ (Police restrictions in Bardhaman) ।

এদিন বর্ধমান শহরের জি টি রোড, কার্জন গেট, বীরহাটা-সহ বেশ কয়েকটি এলাকায় বাসিন্দাদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে রাস্তায় নামে পুলিশ। মাস্ক না পরা বাসিন্দাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। অনেকের হাতে মাস্ক ধরিয়ে দেয় পুলিশ। জেলা পুলিশের আধিকারিকরা বলছেন, করোনার সংক্রমণ রুখতে পথে বের হলেই মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সেই নির্দেশ মানা নিশ্চিত করতে তৎপরতা বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে তৎপরতা আরও বাড়ানো হবে।

আরও পড়ুন : একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়ে গেল, উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে মাস্ক না পরে কোনও ক্রেতাকে দোকানে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। মাস্ক ছাড়া জিনিস বিক্রি করা যাবে না বলে নির্দেশ জারি হয়েছে। সেই সঙ্গে শারীরিক দূরত্ব বিধি মেনে বেচাকেনা করতে হবে। তবে এত সব নির্দেশ সত্ত্বেও বাজারে ভিড় কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। বরং তা বেড়েই চলেছে। এ বার বাজার এলাকাগুলিতে ভিড় কমাতে বিধি নিষেধ আরোপ করা হতে পারে।

আরও পড়ুন : একদিন অন্তর দোকান খোলা হোক চাইছে প্রশাসন, কী দাবি ব্যবসায়ীদের?

এমনিতেই বর্ধমান শহরে দোকান খোলা বন্ধের বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। রবিবার সব দোকান বন্ধ থাকবে। সোমবার মাছ মাংস সবজি মিষ্টির দোকান বন্ধ থাকবে। তাই এদিন খাদ্য সামগ্রী সংগ্রহে বাসিন্দাদের বাড়তি ভিড় লক্ষ করা গেছে। এরপর আরও কড়াকড়ি হতে পারে এই আশঙ্কাতে অনেকে বাড়তি কেনাকাটা করছেন। সব মিলিয়ে সংক্রমণের আশঙ্কা আরও বেড়েই চলেছে।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Bardhaman, Coronavirus, COVID19

পরবর্তী খবর