প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া বিতর্কের মধ্যেই শিক্ষকদের বদলি নিয়ে পার্থর একি মন্তব্য!

তার মধ্যেই নতুন নিযুক্ত শিক্ষকদের বদলি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যে ছড়াল চাঞ্চল্য ৷

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 10:42 AM IST
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া বিতর্কের মধ্যেই শিক্ষকদের বদলি নিয়ে পার্থর একি মন্তব্য!
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 10:42 AM IST

#হুগলি: ৪২ হাজার শূন্য পদে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বিতর্ক, বিক্ষোভ, আন্দোলন অব্যাহত ৷ তার মধ্যেই নতুন নিযুক্ত শিক্ষকদের বদলি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যে ছড়াল চাঞ্চল্য ৷ রবিবার চুঁচুড়ায় হুগলি জেলা তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির দ্বিতীয় বার্ষিক সন্মেলনে যোগ দিতে এসে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, নতুন চাকরিতে যোগ দিয়েছেন যে সব প্রাথমিক শিক্ষক, তারা আগামী ১০ বছরের মধ্য বদলি হতে পারবেন না ৷ শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যেই ছড়ায় চাঞ্চল্য ৷

জেলায় জেলায় প্রাথমিক শিক্ষকপদে চাকরি প্রার্থীরা আংশিক সময়ের বদলে পূর্ণ সময়ের শিক্ষক পদে নিয়োগের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন ৷ বীরভূম, বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর, দিকে দিকে একই চিত্র ৷

মেধা তালিকায় নাম রয়েছে ৷ কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ ৷ কিন্তু নিয়োগপত্রে পার্শ্ব শিক্ষকের পদ দেখে সেই নিয়োগ পত্র নিতে নারাজ চাকরিপ্রার্থীরা ৷ জেলায় জেলায় প্যারা টিচারদের আন্দোলন নিয়ে বিরক্ত শিক্ষামন্ত্রী ৷

আরও পড়ুন

যারা রাজনৈতিক দাদাদের ধরে প্রাথমিকে চাকরি পায়নি, তারাই আন্দোলন করছে : পার্থ

Loading...

এদিন সম্মেলন মঞ্চ থেকে শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্যে শুরু হল নতুন জল্পনা ৷ ইতিমধ্যেই ৪২ হাজার প্যানেলভুক্ত পরীক্ষার্থীর অধিকাংশই নিয়োগপত্র হাতে পেয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন ৷

পরে প্রাথমিক শিক্ষকের বদলি নিয়ে প্রশ্ন করলে বিষয়টি ব্যাখা করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন প্রাথমিক শিক্ষকরা অনেকেই শূন্যপদ বেশি থাকার জন্য নিজের জেলা ছেড়ে অন্য জেলা থেকে আবেদন করেছিলেন ৷ কাউন্সেলিংয়ের পর আবেদন করা জেলার স্কুলেই পোস্টিং পেয়েছে ৷ এসব ক্ষেত্রে অনেক সময় দেখা যায়, চাকরিতে যোগ দিয়েই অনেকে পোস্টিং বদলাতে চান ৷ তাতে অস্থিরতা-বিশৃঙ্খলা তৈরি হয় নিয়োগে ৷ সেই প্রবণতা আটকাতেই চলতি নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হয়ে শিক্ষকরা স্থিতু হওয়া পর্যন্ত বদলির আবেদন করা যাবে না ৷

একইসঙ্গে নব নিয়োজিত প্রাথমিক শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হুঁশিয়ারি, ‘কোনও দাদা বা বড় কাউকে’ ধরেও বদলি হবে না ৷

চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভে বিক্ষুব্ধ শিক্ষামন্ত্রী এদিন বলেন, ‘ ২২ লক্ষ চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষা দিয়েছে, তার মধ্যে ৪২ হাজার চাকরি পেয়েছে। যারা পায়নি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল তাদের ওস্কাচ্ছে, তারাই আন্দোলন করছে ৷ যারা দাদাদের ধরেও পায়নি তারাই আন্দোলন করছে।’

First published: 10:39:39 AM Feb 20, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर