Home /News /south-bengal /
Environment : পরিবেশ সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ বট ও অশ্বত্থ গাছ

Environment : পরিবেশ সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ বট ও অশ্বত্থ গাছ

বিয়ে দেওয়া হয়েছে বট ও অশ্বত্থ গাছের মধ্যে

বিয়ে দেওয়া হয়েছে বট ও অশ্বত্থ গাছের মধ্যে

Environment : বিয়ে উপলক্ষে বিশাল আয়োজন। প্রচুর লোকের সমাগম। কিন্তু বর কোথায় কনে কোথায়? তা জানলে কিছুটা তাজ্জবই হবেন।

  • Share this:

    কাঁকসা : রীতিমতো মন্ত্র পাঠ করে হচ্ছে বিয়ে। অন্যদিকে চলছে তুমুল নাচ-গান পঞ্চ ব্যঞ্জন সাজিয়ে এলাহি আয়োজনের সঙ্গে চলছে খাওয়া-দাওয়া। বিয়ে উপলক্ষে বিশাল আয়োজন। প্রচুর লোকের সমাগম। কিন্তু বর কোথায় কনে কোথায়? তা জানলে কিছুটা তাজ্জবই হবেন।

    কারণ এই এলাহি আয়োজন করা হয়েছিল দুটি গাছের বিয়ে উপলক্ষে। কাঁকসা ব্লকের গোপালপুরের উত্তরপাড়ার সত্যনারায়ণ পল্লী। সেখানেই অনুষ্ঠিত হয়েছে এই জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠান। বিয়ে দেওয়া হয়েছে বট ও অশ্বত্থ গাছের মধ্যে। পাশাপাশি অবস্থিত এই দুটি গাছকে স্থানীয়রা দীর্ঘদিন ধরেই পুজো দিয়ে আসছেন। সামনেই বাঁধানো জায়গা রয়েছে পুজো দেওয়ার জন্য। কিন্তু এবার সেই গাছগুলিকে বিয়ে দেওয়া হল। কিন্তু কেন গাছেদের বিয়ের আয়োজন করা হল? তা জানলেও কিছুটা অবাক হবেন। স্থানীয়দের উদ্যোগে আয়োজিত এই বিয়ে নিয়ে কৌতূহল জেগে ছিল অনেকের মনেই।

    আরও পড়ুন : ফ্যান, এসি নয়, তীব্র গরমে এভাবেই ঘরবাড়ি সুশীতল রাখার কথা বলেন এই শিক্ষিকা

    তবে উদ্যোক্তারাই সেই কৌতূহল মিটিয়েছেন। উদ্যোক্তারা বলছেন,  মানবসভ্যতা রক্ষা করতে উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু কখনও উন্নয়নের নামে, কখনও ব্যক্তিগত স্বার্থে সবুজকে ধ্বংস করা হচ্ছে। যার ফলে অতিরিক্ত গরম সহ্য করতে হচ্ছে মানুষকে। তাই উদ্ভিদের গুরুত্ব বোঝাতে, উদ্ভিদের প্রাণ আছে, তা সকলের কাছে আরও পরিষ্কার করে তুলতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।

    আরও পড়ুন : বছরভর মিলবে খাবার ও পানীয, বাড়ির ছাদে পশুপাখিদের জন্য ‘বাপের হোটেল’

    দু’টি গাছকে বিয়ের মাধ্যমে যেমন ভালবাসার বন্ধনে আবদ্ধ করা হয়েছে, তেমন ভাবেই মানুষের সঙ্গে যাতে উদ্ভিদের বন্ধন আরও দৃঢ় হয়, তার জন্যই এই উদ্যোগ। এলাকার মহিলারাই উদ্যোগ নিয়ে বিয়ের আয়োজন, পরিকল্পনা করেছেন। আর দীর্ঘ খাটাখাটনির পর বিয়ের দিন হৈ-হুল্লোড় করেছেন উদ্যোক্তা থেকে শুরু করে স্থানীয় মানুষ। বিয়ের খবর পেয়ে বাইরে থেকে এসেছিলেন অনেকে। সকলকে এ দিন ভোজও খাওয়ানো হয়েছে।

    ( প্রতিবেদন : নয়ন ঘোষ)

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Bardhaman, Burdwan

    পরবর্তী খবর