মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরে দিনভর ভোট চলল নরমে-গরমে

মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরে দিনভর ভোট চলল নরমে-গরমে
photo: News18 Bangla
  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ: কোথাও গ্রামবাসীদের হুমকি দিয়ে দুষ্কৃতীদের অবাধ বোমাবাজি। কোথাও বয়স্কদের হয়ে অন্য কারও দেদার ভোট। পুলিশের বিরুদ্ধে ভোটারদের মারধরের অভিযোগও উঠল। মঙ্গলে নবাবের শহর মুর্শিদাবাদের অলি-গলিতে ভোটের উত্তাপ৷ তৃতীয় দফার ভোটে ভাগীরথী তীরের শহর ও জঙ্গিপুরে ভোটে এড়ানো গেল না অশান্তি। দুষ্কৃতীদের জমায়েতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বাংলাদেশের রানিনগরের সীমান্ত গ্রাম চক-ফিরোজপুর। স্থানীয়দের অভিযোগ, তাঁদের ভয় দেখাতে বোমাবাজি করা হয়। দুষ্কৃতীদের ধাওয়া করে সরিয়ে দেয় পুলিশ।

বৃদ্ধাকে সাহায্য করতে ভোট দিয়ে দিলেন পোলিং এজেন্ট। মালডোবা স্কুলের ২২৪ নম্বর বুথের ঘটনা। অভিযুক্ত মাসাদুল শেখ তৃণমূল পোলিং এজেন্ট বলে দাবি কংগ্রেসের।  যদিও মাসাদুলের দাবি, তিনি সিপিএমের এজেন্ট। পুলিশের বিরুদ্ধের উঠল ভোটারদের মারধরের অভিযোগ। হরিপুরে বুথের কাছে জটলা সরাতে গেলে ভোটারদের সঙ্গে বচসা হয় পুলিশের । সেই সময়েই কয়েকজন ভোটারকে মারধরের অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। মারধরে  জখম হয় শিশু-সহ তিনজন। দোকান ভাঙচুরেরও অভিযোগ ওঠে।

খড়গ্রামে আক্রান্ত কংগ্রেস ব্লক সভাপতি আবদুস সালাম। তাঁকে মারধরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। সুতির মুরালিপুকুরের ৫৮ নম্বর বুথে প্রিসাইডিং অফিসারের সামনেই এক বৃদ্ধার ভোট দিয়ে দিলেন অন্য এক মহিলা। কংগ্রেসের অভিযোগ, ওই মহিলা তৃণমূলকর্মী। বৃদ্ধাকে নিয়ে বুথে আসেন মহিলা। তারপর তাঁকে বসিয়ে রেখে নিজেই ভোটটা দিয়ে দেন তিনি। মুখে কুলুপ প্রিসাইডিং অফিসারের।

বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছিল কমিশন। বেশিরভাগ কেন্দ্রে ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। সতর্ক ছিল পুলিশও। তবু দিনের শেষে এড়ানো যায়নি অশান্তি।

First published: 08:49:42 PM Apr 23, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर