• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • MIDNAPORE PORTRAIT OF SHIVA THAKUR IN OYSTERS EXCITEMENT OVER THE SABANG INCIDENT IN WEST MIDNAPORE SR

Shiv Ling: ঝিনুকের মধ্যে শিব ঠাকুরের প্রতিকৃতি! পশ্চিম মেদিনীপুরের সবংয়ের ঘটনায় চাঞ্চল্য

শিবলিঙ্গের প্রতিকৃতি ঝিনুকের মধ্যে । নিজস্ব চিত্র ।

সকলেই ফুলমণির উদ্দেশ্যে বলছেন, "তোমরা ভাগ্যবান। এই অতিমারির মধ্যে দেবাদিদেব মহাদেব তোমার বাড়িতে এসেছেন!"

  • Share this:

    Partha Mukherjee

    ঝিনুকের মধ্যে শিব ঠাকুরের প্রতিকৃতি! পশ্চিম মেদিনীপুরের সবংয়ের ঘটনায় আপ্লুত সকলেই। ঝিনুকের মধ্যে শিব ঠাকুরের প্রতিকৃতি! অলৌকিক এই ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরে। ঘটনাটি ঘটেছে সবং ব্লকের তেমাথানী অঞ্চলের লুটুনিয়া গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, লুটুনিয়া গ্রামের ফুলমণি সরেন নামে এক মহিলা হাউর এলাকার একটি পুকুর থেকে ঝিনুক তুলে নিয়ে আসেন আর পাঁচটা দিনের মতো। রবিবার বাড়িতে ফিরে সেই ঝিনুক গুলি ভাঙতে গিয়ে দেখেন, একটি ঝিনুকের মধ্যে যেন সাক্ষাৎ শিব ঠাকুরের প্রতিকৃতি! ঝিনুকের ওপরের ও নীচের দু’টি খোলাতেই শিব ঠাকুরের মূর্তি দেখতে পান তিনি এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এরপর তাঁরা ঝিনুকটি পাশাপাশি মানুষদের দেখালে সকলেই অবাক হয়ে যান! খবর পেয়ে পৌঁছন, স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান সহ অন্যান্যরা। তাঁরাও রীতিমতো বিস্মিত হয়ে যান।

    প্রসঙ্গত, রবিবারের এই ঘটনার কথা ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মাধ্যমেও। ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে ওই এলাকায়। সকলেই ফুলমণির উদ্দেশ্যে বলছেন, "তোমরা ভাগ্যবান। এই অতিমারির মধ্যে দেবাদিদেব মহাদেব তোমার বাড়িতে এসেছেন!" যদিও, আপাত শান্ত প্রকৃতির ফুলমণি, তাঁর স্বামী ও সন্তানেরা বিষয়টি নিয়ে মহা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। বুঝতে পারছেন না এটা নিয়ে কী করবেন। যদিও, স্থানীয় পঞ্চায়েতের লোকজন তাঁকে বলেছেন, আপাতত এটি তাঁদের কাছেই রাখতে এবং পূজার্চনা করতে।

    তবে এই ঘটনাটিকে "অলৌকিক" বলে মানতে রাজি নয় বিজ্ঞান মঞ্চের পশ্চিম মেদিনীপুর শাখা। মঞ্চের সম্পাদক নন্দদুলাল ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন, "ঝিনুকের মধ্যে বিভিন্ন জৈব রাসায়নিক প্রক্রিয়ার ফলে কিছু কিছু পরিবর্তন হতে পারে। তাতেই হয়তো এ রকম প্রতিকৃতি পেয়েছে। তবে, কোন কিছুই অলৌকিক হতে পারে না। সবটাই লৌকিক বা বিজ্ঞানের উপর নির্ভর করে বিশ্লেষণ করতে হবে।" এ নিয়ে গুজব ছড়ানো থেকেও তিনি বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। তাঁরা আগামিকালই বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানিয়েছেন।

    Published by:Simli Raha
    First published: