১ ঘণ্টা ৫২ মিনিট পর প্রতিশ্রুতি আদায় করে বয়ালের বুথ ছাড়লেন মমতা

১ ঘণ্টা ৫২ মিনিট পর প্রতিশ্রুতি আদায় করে বয়ালের বুথ ছাড়লেন মমতা

বয়ালের কেন্দ্র থেকে বেরোচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ANI

আইবিটিপি জওয়ানরা তাঁকে দায়িত্ব নিয়ে বের করে গাড়িতে ওঠার ব্যবস্থা করেন।

  • Share this:

#নন্দীগ্রাম: ১ ঘণ্টা ৫২ মিনিটের মধ্য়ে এক জায়গায় ঠায় বসে থাকার পর অবশেষে বয়ালের সাত নং বুথ থেকে বেরিয়ে এলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। নন্দীগ্রামের দায়িত্বে থাকা আইপিএস নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী  তাঁকে নিরাপত্তা নিয়ে আশ্বস্ত করার পরে বুথের বাইরে আসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আইবিটিপি জওয়ানরা তাঁকে দায়িত্ব নিয়ে বের করে গাড়িতে ওঠার ব্যবস্থা করেন।

এ দিন ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ পেয়ে সরাসরি বয়াল পৌঁছে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি প্রিসাইডিং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলাকালীন পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বুথের ২০০ মিটারের মধ্যেই জমায়েত করতে দেখা যায় যুযুধান দু'পক্ষকেই। পরিস্থিতি ক্রমে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে। বাহিনীর অপার্যপ্তাও ধরা পড়ে। মমতা রাজ্যপালকে ফোন করে অভিযোগ জানান। আদালতে যাওযার কথাও শোনা যায় তাঁর মুখে। মমতা প্রশ্ন তোলেন, বুথের ২০০ মিটারের মধ্যে এত লোক কেন? এরই পাশাপাশি মমতা বলেন, অন্তত ৬৩টি অভিযোগ জানালেও কোনও সুরাহা হয়নি। এই সময়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন নন্দীগ্রামের দায়িত্বে থাকা আইপিএস অফিসার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী। প্রায় পনেরো মিনিট কথা বলেন তাঁরা।

মমতা নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠীকে বলেন, "আগে এখান থেকে লোক সরাও। তারপর আমি এই জায়গা ছাড়ব। তোমাকে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তাহলে এই অবস্থা কেন?" নগেন্দ্র ত্রিপাঠী উত্তরে বলেন, "আমি নিশ্চিত করছি আর কোনও অশান্তি হবে না।" এই সময়ে জেলা পুলিশ সুপার সুনীল যাদবও চলে আসেন আসেন। মমতা তাঁকেও প্রশ্ন করেন, "সকাল থেকে এই কেন্দ্র থেকে একাধিক অভিযোগ করা হলেও কেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি?"নগেন ত্রিপাঠী কথাবার্তার মধ্যেই  উর্দি দেখিয়ে বলেন, "ম্যাডাম খাঁকি উর্দিতে দাগ নেবো না,  আর এমন অশান্তি হবে না।" মমতা প্রশ্ন করেন, কে বা কারা এখানে ছাপ্পা ভোট করল? নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী বলেন, "আমি দায় নিচ্ছি, এর পর ভোট দিতে আর অসুবিধে হবে না।" এই সময়ে মমতার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আইপিএস জ্ঞানবন্ত সিং বলেন, "আমরা ম্যাডামের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবো। শুধু নিজের নয়, এলাকাবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত হতেই বুথ ছাড়েন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে সমর্থকদের লক্ষ্য করে হাত নাড়তেও দেখা যায়। বহু সমর্থকই নিরাপদ পরিস্থিতিতে ভোট দেওয়ার আর্জি জানান।

মমতা যখন গাড়িতে উঠে এলাকা ছাড়ছেন, এদিনও খেলা হবে স্লোগান ওঠে। আপাতত এটাই দেখার বয়াল কেন্দ্রর ভোটাররা নিজের ভোট নিজে দিতে পারেন কিনা।

Published by:Arka Deb
First published: