Birbhum BJP: সতীপীঠ, শক্তিপীঠ-সহ শান্তিনিকেতনে বিপুল উন্নয়ন, ইশতেহার প্রকাশ বীরভূম জেলা বিজেপির

Birbhum BJP: সতীপীঠ, শক্তিপীঠ-সহ শান্তিনিকেতনে বিপুল উন্নয়ন, ইশতেহার প্রকাশ বীরভূম জেলা বিজেপির

বীরভূম জেলা বিজেপির ইশতেহার প্রকাশ ।

পর্যটকদের জেলায় আকর্ষণের জন্য বীরভূমকে আলাদা করে প্রচার করা হবে। তা শুধু রাজ্যের মধ্যে নয়, যে হেতু দেশের মধ্যে এক সরকার বিজেপি আছে, তাই সারা দেশ জুড়ে বীরভূমের পর্যটনের প্রচার হবে।

  • Share this:

Supratim Das

#বীরভূম: বিধানসভা ভোটের পর বিজেপি সরকার রাজ্যে ক্ষমতায় এলে পর্যটনকে সামনে রেখে বীরভূমে অর্থনৈতিক বিকাশ ঘটবে । শক্তিপীঠ ও সতীপীঠ গুলির ব্যাপক উন্নয়ন ঘটবে। সিউড়িতে বিজেপির ইস্তেহার প্রকাশের এই দাবি করেন দলের জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা। যদিও তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন বিজেপি মিথ্যাবাদীর দল। দলের চেয়ারম্যান তথা বিদায়ী মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, বিজেপির সবটাই ভাঁওতা। ওঁদের কথা বিশ্বাস করি না। সিউড়িতে বিজেপি দলের জেলা কমিটির নির্বাচনী দফতরে রাজ্যের প্রকাশিত ইস্তেহার তুলে জেলাবাসীর জন্য বিশেষ বার্তা দিয়েছেন বিজেপির জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা।

জেলার জন্যও বিশেষ পরিকল্পনা আছে বলে  দাবি করেন ধ্রুব সাহা। তিনি জানান, বীরভূমে পাঁচটি সতীপীঠ। এখানে পর্যটনের জন্য আলাদা করে পর্যটন নীতি তৈরি করবে বিজেপি সরকার। শান্তিনিকেতনের জন্য আলাদা করে দেড় হাজার কোটি টাকার প্রকল্প। এ ছাড়া জঙ্গলমহল, শক্তিপীঠ, তারাপীঠ, চৈতন্য সহচর নিত্যানন্দের জন্মস্থান একচক্রধাম সাজিয়ে তোলা হবে, বক্রেশ্বর, সাঁইথিয়াতে নন্দিকেশরী তলা সতীপীঠে আলাদা করে পর্যটন সার্কিট করা হবে। পর্যটকদের জেলায় আকর্ষণের জন্য বীরভূমকে আলাদা করে প্রচার করা হবে। তা শুধু রাজ্যের মধ্যে নয়, যে হেতু দেশের মধ্যে এক সরকার বিজেপি আছে, তাই সারা দেশ জুড়ে বীরভূমের পর্যটনের প্রচার হবে।

যদিও তৃণমূলের তরফ থেকে বিজেপির এই ইস্তেহারকে সামনে রেখে প্রচারকে মিথ্যার প্রচার বলে দাবি করেছেন। দলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল জানান, শুধুমাত্র বীরভূমে পর্যটন বিকাশে চারটি উন্নয়ন পর্ষদ গড়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তারমধ্যে কয়েকশ কোটি টাকা খরচ করে উন্নয়ন হয়েছে তারাপীঠের। যাকে একটা আন্তর্জাতিক মানের গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শান্তিনিকেতন উন্নয়ন পর্ষদ আগে থেকেই কাজ করছে। এ ছাড়াও বক্রেশ্বর ও তারাপীঠের উন্নয়নে আলাদা করে পর্ষদ গড়ে দিয়েছে। বিজেপি মিথ্যাবাদীর দল। তাঁদের প্রতিশ্রুতিও মিথ্যা।

তারাপীঠ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান তথা মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ২০১৮ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে তারাপীঠে পুজো দিতে এসে একইভাবে প্রতিশ্রুতি দিয়ে গিয়েছিলেন বিজেপির ততকালীন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কিন্তু গত দু’বছরে একটা ইঁটের জন্য একটাকাও খরচ করেনি বিজেপি। তাই মিথ্যাবাদীর দল বিজেপি জেলার পর্যটনস্থলের শান্তি নষ্ট করতে, জেলার মানুষকে ভুল বোঝাতে এই মিথ্যা ইস্তেহার প্রকাশ করেছে। মানুষ তা ছুঁড়ে ফেলে দেবে।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর