Home /News /south-bengal /
Good News: সহকর্মীর পাশে থেকে তাঁর সন্তানদের দায়িত্ব নিয়ে নিদর্শন তৈরি মহিলা পুলিশ কর্মীর

Good News: সহকর্মীর পাশে থেকে তাঁর সন্তানদের দায়িত্ব নিয়ে নিদর্শন তৈরি মহিলা পুলিশ কর্মীর

Birbhum News: মাধ্যমিক পরীক্ষাকেন্দ্রে ডিউটিরত এই মহিলা পুলিশ কর্মী এক পরীক্ষার্থীর ক্ষুদার্ত শিশুকে স্তন্যপান করান৷

  • Share this:

#বীরভূম: সহ কর্মীর পাশে দাঁড়ালেন অন্য এক মহিলা পুলিশ কর্মী । দায়িত্ব নিলেন অসুস্থ সহ কর্মীর দুই সন্তানের । দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছেন বীরভূমের নানুর থানায় কর্মরত কনস্টেবল চৌধুরী খাইরুল আলম । তারপরই জানা যায় তাঁর দুটি কিডনিই নষ্ট হয়ে গিয়েছে । আপাতত কিডনির ডোনার খোঁজা হচ্ছে তার জন্য৷ তবে এখনও পর্যন্ত তা পাওয়া যাচ্ছে না কোথাও । সহ কর্মী ছবিলা খাতুনের সাথে  আলাপ ২০১৬ সালে বীরভূমের মহম্মদবাজার থানায় কর্মরত থাকাকালীন। বর্তমানে ছবিলা খাতুন সিউড়ির সাইবার ক্রাইম বিভাগে কর্মরতা কনস্টেবল। বেশ কয়েক দিন আগেই ছবিলা খাতুন জানতে পারেন তার সহকর্মীর এই অসুস্থতার কথা । আর তার পরেই সিদ্ধান্ত নেন পাশে দাঁড়াবেন চৌধুরী খাইরুল আলমের ।

আরও পড়ুন Weather Update: আগামী ৫দিন টানা ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা কোথায়? সময়ের কত আগে বর্ষার প্রবেশ রাজ্যে?

ছবিলা খাতুন দায়িত্ব নেন চৌধুরী খাইরুল আলমের দুই সন্তানের । চৌধুরী খাইরুল আলমের মা বলেন , " দীর্ঘদিন ধরে আমার ছেলে শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছে । বেশ কয়েক মাস বেঙ্গালুরু থেকেও চিকিৎসা করিয়ে ছিলাম । কিন্তু তারপরও কোনও সমাধান হয়নি । এমনকি আমি নিজের কিডনি ওকে দিতে চেয়েছিলাম । কিন্তু আমার হার্টের সমস্যা থাকায় আমি দিতে পারলাম না । আমার একটাই ছেলে ও তার দুটো ছেলে । সব কিছু জেনে ছবিলা আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে । আমার নাতি দুটোর পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছে । আমি প্রাণ ভরে ওকে আশীর্বাদ করি । ভগবান ওর ভাল করুক । "

চৌধুরী খাইরুল আলমের স্ত্রী চৌধুরী নাজমা খাতুন বলেন, " আমার স্বামী অনেক দিন ধরেই অসুস্থ । দুটো কিডনি খারাপ । আমার আর কেউ নেই । চিন্তায় ছিলাম যে কে আমাদের সাহায্য করবে । আমরা ছেলে দুটোকে পড়াতে পারছিলাম না । তারপরই ছবিলাদির সাথে ওর পরিচয় হয় । উনি আমার ছেলে দুটোর পড়াশোনার দায়িত্ব নেন । " তবে এসব যেন ছবিলার কাছে কিছুই নয় , তার সাফ কথা - " আমার সহকর্মী , তার সমস্যাতে পাশে দাঁড়ানোটাই কর্তব্য , সেটাই করেছি মাত্র" ।  উল্লেখ্য এই ছবিলাই ছবি ভাইরাল হয়েছিল৷ বীরভূমের মহম্মদবাজারের একটি মাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রে এক পরীক্ষার্থী মায়ের সদ্যোজাত শিশুর কান্না থামাতে নিজের দুধ পান করেছিলেন তিনি৷ সেই সময় তাঁর ডিউটি চলছিল সেই কেন্দ্রে।

Published by:Pooja Basu
First published:

Tags: South bengal news

পরবর্তী খবর