Home /News /south-bengal /
INTTUC Leaders Arrested in Haldia: শিল্পে দাদাগিরি নয়, হলদিয়ায় গ্রেফতার চার দাপুটে নেতা! দলকে কড়া বার্তা মমতার

INTTUC Leaders Arrested in Haldia: শিল্পে দাদাগিরি নয়, হলদিয়ায় গ্রেফতার চার দাপুটে নেতা! দলকে কড়া বার্তা মমতার

শ্রমিক বিক্ষোভে হলদিয়ায় এক্সাইড-এর এই কারখানাতেই কাজ থমকে গিয়েছিল৷

শ্রমিক বিক্ষোভে হলদিয়ায় এক্সাইড-এর এই কারখানাতেই কাজ থমকে গিয়েছিল৷

এই ঘটনার পরই মঙ্গলবার রাতে হলদিয়া পৌঁছেছেন রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক এবং আইএনটিটিইউসি-র রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় (INTTUC Leaders Arrested in Haldia)৷

  • Share this:

#হলদিয়া: শিল্প ক্ষেত্রে কোনওরকম দাদাগিরি বরদাস্ত করা হবে না৷ রেয়াত করা হবে না শাসক দলের নেতাদেরও৷ সেই বার্তা দিতেই হলদিয়ায় তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনের চার দাপুটে নেতাকে গ্রেফতার করল পুলিশ (INTTUC Leaders Arrested in Haldia)৷ হলদিয়ার (Haldia) এক্সাইড ব্যাটারি কারখানায় শ্রমিকদের ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ওই নেতাদের বিরুদ্ধে৷ শিল্প ক্ষেত্রে কোনও রকম দাদাগিরি যে বরদাস্ত করা হবে না এবং রং না দেখেই সরকার ব্যবস্থা নেবে, এই পদক্ষেপের মাধ্যমে শিল্প মহলের পাশাপাশি দলের নেতাদেরও সেই বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

ধৃত চার নেতার মধ্যে রয়েছেন আইএনটিটিইউসি-র তমলুক জেলা সভাপতি তাপস মাইতি এবং জেলার আর এক দাপুটে আইএনটিটিইউসি নেতা ও হলদিয়ার পর্যবেক্ষক সঞ্জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ ছাড়াও গ্রেফতার করা হয়েছে সৌমেন নাগ ও শেখ মইদুল ইসলাম নামে শাসক দলের শ্রমিক সংগঠনের আরও দুই নেতাকে৷

আরও পড়ুন: পছন্দের লোককে কাজ দিতে হবে, সরকারি এক আধিকারিককে রিভলবার দিয়ে প্রাণে মারার হুমকি

এই ঘটনার পরই মঙ্গলবার রাতে হলদিয়া পৌঁছেছেন রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক এবং আইএনটিটিইউসি-র রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন হলদিয়ার বিভিন্ন শিল্প সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন মলয় ঘটক ও ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়৷

এর পাশাপাশি দলের শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন তাঁরা৷ সেই বৈঠকে একদিকে যেমন সরকার এবং শাসক দলের তরফে শিল্প সংস্থার প্রতিনিধিদের আশ্বস্ত করা হয়েছে, সেরকমই দলের নেতাদেরও বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে যে শিল্পক্ষেত্রে কোনও রকম বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না৷ সরকারের এই মনোভাবে খুশি শিল্প সংস্থার প্রতিনিধিরাও৷

মলয় ঘটক পরে জানিয়েছেন, 'শিল্পবান্ধব পরিবেশ নষ্ট করা যাবে না, মুখ্যমন্ত্রী এটাই চান৷ সেটা সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷' অভিযুক্ত দুই নেতা তাপস মাইতি এবং সঞ্জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কেও সাসপেন্ড করা হয়েছে৷ পাশাপাশি, আইএনটিটিইউসি থেকে স্পেশ্যাল অবজার্ভার পদটিও তুলে দেওয়া হয়েছে৷

আরও পড়ুন: Haldia-র মাদুলি বাবার চক্র ফাঁস, Corona সারিয়ে দেওয়ার দাবি করতেই বাড়িতে police-এর হানা

হলদিয়ার শিল্প তালুকে অন্যতম বড় নাম এক্সাইড ব্যাটারি কারখানা৷ অভিযোগ, বিক্ষোভের নামে গত কয়েকদিন ধরেই কারখানায় শ্রমিকদের ঢুকতে বাধা দিচ্ছিল শাসক দলের শ্রমিক সংগঠনের নেতারা৷ ফলে ব্যাহত হচ্ছিল কারখানার স্বাভাবিক কাজকর্ম৷ বাধ্য হয়ে সংস্থার তরফে দুর্গাচক থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ তার পরেই প্রথমে সৌমেন নাগ ও শেখ মইদুল ইসলাম নামে দুই নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

এর পর মঙ্গলবার দুপুরেই আইএনটিটিইউসি-র তমলুক তাপস মাইতি ও পর্যবেক্ষক সঞ্জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে থানায় ডেকে পাঠায় পুলিশ৷ রাতভর জেরা করার পর ওই দু' জনকেই গ্রেফতার করা হয়৷ এ দিন চার অভিযুক্তকেই হলদিয়ার আদালতে তোলে পুলিশ৷ তাপস মাইতিকে সরিয়ে তমলুকে আইএনটিটিইউসি-র নতুন সভাপতি করা হয়েছে শিবনাথ সরকারকে৷

হলদিয়ার নামী কারখানায় এই অচলাবস্থার খবর পৌঁছয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কানেও৷ মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই এ দিন হলদিয়া ভবনে শিল্প সংস্থার প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করেন মলয় ঘটক এবং ঋতব্রত বন্দোপাধ্যায়। সেই বৈঠকেই মুখ্যমন্ত্রীর তরফে শিল্প সংস্থার প্রতিনিধিদের আশ্বস্ত করা হয়৷ সরকারের এই ভূমিকায় খুশি শিল্প মহলও৷ হলদিয়ার এক্সাইড কারখানার চিফ অপারেশনাল ম্যানেজার তরুণকুমার পাল বলেন, 'দীর্ঘদিন ধরে কারখানার কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছিল৷ এই পদক্ষেপের প্রয়োজন ছিল৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Haldia, INTTUC, Mamata Banerjee

পরবর্তী খবর