পচা মিষ্টির সঙ্গে মিশছে মারাত্মক রাসায়নিক! নকল ঘি তৈরির কারখানার পর্দাফাঁস বর্ধমানে

পচা মিষ্টির সঙ্গে মিশছে মারাত্মক রাসায়নিক! নকল ঘি তৈরির কারখানার পর্দাফাঁস বর্ধমানে

উদ্ধার হয়েছে কয়েক হাজার কেজি নকল ঘি ও ঘি তৈরির কাঁচামাল ৷ আটক করা হয়েছে দু’জনকে ৷

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: টিনের গায়ে  বড়বড় করে লেখা - নকল হইতে সাবধান। অথচ সেই টিনের মধ্য়েই কি না বিষাক্ত ঘি ৷ বর্ধমান শহর লাগো৷য়া দুবরাজদিঘির মাঠপাড়ায় হদিশ মিলল নকল ঘি তৈরির কারখানার ৷ উদ্ধার হয়েছে কয়েক হাজার কেজি নকল ঘি ও ঘি তৈরির কাঁচামাল ৷ আটক করা হয়েছে দু’জনকে ৷

দুবরাজদিঘির জনবসতি পেরিয়ে ফাঁকা মাঠ ৷ তারই এক প্রান্তে রমরমিয়ে চলছিল নকল ঘি তৈরির কারখানা ৷ দিন-রাত এক করে চলছিল পরিশ্রম ৷ সেই পরিশ্রম যে নকল ঘি তৈরির পিছনে, সেটা টেরই পাননি স্থানীয়রা ৷  তদন্তে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন মিষ্টি দোকান থেকে আনা হত খারাপ মিষ্টি ও মিষ্টির পচা রস ৷ পচা রসকে চলতি কথায় বলা হয় গাদ ৷  বিরাট ড্রামে এগুলোর সঙ্গে মিশত বিভিন্ন রাসায়নিক ৷  বেশ কয়েকবার সেগুলি ছাঁকার পর তার সঙ্গে মেশানো হত ঘিয়ের এসেন্স ৷ তারপর নকল করা নামী কোম্পানির লেবেলের বোতলে ভরা হত  ৷ চড়া দামে বাজারে বিক্রি হত বিষাক্ত ঘি ৷

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রকাশ্য়ে চলছিল এই কারখানা ৷ স্থানীয়দের দাবি, তাঁদের বলা হয়, গোখাদ্য় তৈরি হচ্ছে কারখানায় ৷ কিন্তু তার আড়ালেই চলত এই কারখানা ৷ ফোটানোর সময় দুর্গন্ধ ছড়াত ৷ বারবার বলেও লাভ হয়নি ৷ তখনও বুঝতে পারেননি, জনসমক্ষে তৈরি হচ্ছে বিষ ৷

ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ (হেড কোয়ার্টার) সৌভিক পাত্রের নেতৃত্বে অভিযানে নকল ঘি তৈরির কারখানার হদিশ মেলে ৷ ঘি তৈরি হওয়ার পর মজুত করা হত পাশের একটি বাড়িতে ৷ বাড়িটি সিল করেছে পুলিশ ৷ বাজারে বিষাক্ত ঘি নিয়ে যাওয়ার জন্য় ব্য়বহার করা হত তিনটি গাড়ি ৷ সেগুলিকেও আটক করা হয়েছে ৷ জিজ্ঞাসবাদের জন্য় আটক করা হয়েছে দুজনকে ৷ বিষাক্ত ঘি চক্রে জড়িত কারা , তাদের  জিজ্ঞাসাবাদ করে নিশ্চিত হতে চাইছে পুলিশ ৷

 
First published: January 27, 2020, 8:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर