corona virus btn
corona virus btn
Loading

গাড়িতে সাঁটা প্রেস স্টিকার, ভিতরে বসে বর-কনে! তল্লাশি চালাতে গিয়ে চোখ কপালে পুলিশের

গাড়িতে সাঁটা প্রেস স্টিকার, ভিতরে বসে বর-কনে! তল্লাশি চালাতে গিয়ে চোখ কপালে পুলিশের
  • Share this:

Saradindu Ghosh

#কাটোয়া: বর-কনের গাড়িতেও প্রেস স্টিকার! চোখ কপালে পুলিশের। গোলাপ ফুলে সাজানো গাড়ি। বিয়ে করে কনেকে নিয়ে ফিরছেন বর। সবই ঠিক আছে। কিন্তু বর-কনের সেই গাড়িতে প্রেস স্টিকার কেন? তবে কি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন কোনও সাংবাদিক! নাকি কোনও সেলিব্রিটির বিয়ে কভার করতে চলেছে মিডিয়া! প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গাড়ি দাঁড় করালো পুলিশ। তাতেই উঠে এল আসল তথ্য!

বুধবার সকালে কাটোয়ার দিক থেকে আসছিল গাড়িটি। বর্ধমানে রেল ওভার ব্রিজে সেই গাড়ি উঠতেই তা আটকায় ট্রাফিক পুলিশ। প্রমাদ গোনেন বর কনে। সিগন্যাল মেনে চলা সত্ত্বেও আটকালো কেন পুলিশ! নিশ্চয়ই গোলমাল কিছু একটা হয়েছে, বুঝে যান তাঁরা।

সব পরিষ্কার হয়ে যায় , প্রেস কার্ড দেখতে চাইতেই।

বর-কনের গাড়িতে প্রেস স্টিকার কেন? চালকের কাছে জানতে চান কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ আধিকারিক। কিন্তু কোনও প্রমাণপত্র বা সদুত্তর কিছুই দিতে পারেননি চালক জয়ন্ত সাধ্য। কোনও সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে যে জয়ন্তবাবু বা গাড়ির কেউই যুক্ত নন, তা স্পষ্ট হয়ে যায়। চালক একটি কার্ড অবশ্য দেখান। কলকাতার টালিগঞ্জের টলিউড টিভি এন্ড সিনে মেকার্স (টেকনিশিয়ানস) ইউনিয়নের কার্ড সেটি। কিন্তু সেই কার্ড নিয়ে গাড়িতে প্রেস স্টিকার লাগানো যায় না, তা জানিয়ে দেন পুলিশ অফিসার।

পুলিশ আধিকারিক সুদীপ্তকুমার নন্দী গাড়ির উইন্ড স্কিন থেকে প্রেস স্টিকার খুলে দিতে বলেন। সেই সঙ্গে চালককে ট্রাফিক আইন মেনে জরিমানাও করেন। বাধ্য হয়ে চালক তা মেনেও নেন।

এদিন পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার শ্রীগ্রাম থেকে হুগলির উত্তরপাড়ার রাধাগোবিন্দ নগরে যাচ্ছিল বর-কনের গাড়িটি। প্রতিবেশীর বিয়েতে গাড়ি নিয়ে এসেছিলেন জয়ন্ত । চালকের সাফাই, এই কার্ডের দৌলতে গাড়িতে প্রেস স্টিকার  ব্যবহার করা যায় বলেই জানতেন তিনি। সেই তথ্য যে ভুল তা মানছেন তিনি। জরিমানা দিয়ে ছাড়া পেতে হাঁফ ছাড়েন চালক। নবদম্পতিও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন।

জেলা পুলিশ জানিয়েছে, ইদানিং গাড়িতে প্রেস স্টিকার  লাগানোর হিড়িক পড়ে গিয়েছে। সেই সুযোগে যে কেউ প্রেস স্টিকার লাগিয়ে নিচ্ছে। প্রেস স্টিকার লাগিয়ে অপরাধও ঘটানো হতে পারে। তাই ভুয়ো প্রেস লাগানো গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে। বর-কনের গাড়িতেও প্রেস স্টিকার দেখে স্বাভাবিক ভাবেই সন্দেহ হয়। তাতেই ভুয়ো গাড়ি ধরা সম্ভব হল।

Published by: Simli Raha
First published: March 11, 2020, 8:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर