Memari Rasulpur Dacoiti Case: ব্যাঙ্কে ডাকাতির আগেই ধরা পড়ল ডাকাতের দল! সঙ্গে গ্রেফতার সিভিক ভলেন্টিয়ার

গভীর রাতে রসুলপুরের সমবায় ব্যাঙ্কে লুঠের চেষ্টা। ডাকাতির আগেই ধরা পড়ে গেল ডাকাতের দল।

গভীর রাতে রসুলপুরের সমবায় ব্যাঙ্কে লুঠের চেষ্টা। ডাকাতির আগেই ধরা পড়ে গেল ডাকাতের দল।

  • Share this:

#রসুলপুর:

শাটার ভেঙে ব্যাঙ্কে ঢুকে ভোল্ট ভাঙার আগেই পুলিশের হাতে ধরা পড়ল পাঁচ ডাকাত। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আজ এক সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ চারজনকে ধরে পুলিশ। সাহানুই সমবায় ব্যাঙ্কের রসুলপুর ব্যাঞ্চের ঘটনা। গভীর রাতে সমবায় ব্যাঙ্কে লুঠের চেষ্টা। ভল্ট ভেঙে টাকা লুঠের সময় হাতেনাতে ৫ দুষ্কৃতীকে ধরল মেমারি থানার পুলিশ।

মঙ্গলবার গভীর রাতে মেমারির রসুলপুরে সাহানুই এসকেইউএস সমবায় ব্যাঙ্কে হানা দেয় দুষ্কৃতি দলটি। সাটার ভেঙে ভিতরে ঢোকে তারা। ব্যাঙ্কের আধিকারিক মোবাইলে সিসি ক্যামেরার ফিড থেকে বিষয়টি জানতে পারেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা মেমারি থানায় বিষয়টি জানান। ব্যাঙ্কের ভল্ট ভাঙার আগেই মেমারি থানার ওসি দেবাশীষ নাগের নেতৃত্বে ব্যাঙ্ক ঘিরে ফেলে পুলিশ।

ব্যাঙ্কের নীচে থাকা কয়েকজন দুষ্কৃতি পুলিশ দেখে চম্পট দেয়। পুলিশ বাহিনী গিয়ে দেখে সমবায় ব্যাঙ্কের সাটার অর্ধেক নামানো রয়েছে। ভিতরে কয়েকজন রয়েছে। তারা ভল্ট ভাঙার চেষ্টা করছে। পুলিশ প্রথমে দুষ্কৃতীদের আত্মসমর্পণ করার জন্য বলে। কিন্ত পুলিশের কথায় কান না দেওয়ায় পুলিশ ভিতরে ঢুকে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। পরে আরোও একজন গ্রেপ্তার হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে এক সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ আরোও চারজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার কামনাশীস সেন জানান,এক সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ ৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার পুননির্মাণ করা হবে। ব্যাঙ্কের আধিকারিক পার্থ দে জানান, কিছুদিন আগে এই এলাকায় গ্রামীণ ব্যাঙ্কে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছিল। তার পর সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়। তার উপকার পেলেন তাঁরা। ডাকাতি রোধ করা গিয়েছে। ব্যাঙ্কের কিছু খোওয়া যায়নি।

Published by:Suman Majumder
First published: