• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • HIV পজিটিভ ক্যান্সার রোগিনীর সফল অস্ত্রোপচার করে নজির গড়ল সিউড়ির হাসপাতাল

HIV পজিটিভ ক্যান্সার রোগিনীর সফল অস্ত্রোপচার করে নজির গড়ল সিউড়ির হাসপাতাল

মাত্র ২৩ বছর বয়সী আদিবাসী ওই রোগিনী ঝাড়খন্ডের ম্যাসাঞ্জোরের বাসিন্দা। রোগিনীর গত ৪-৫ মাস ধরে HIV রোগের চিকিৎসা চলছে। বিগত প্রায় ২ মাস যাবৎ তিনি পাকস্থলীর সমস্যার কারণে কোনও খাবার খেতে পারছিলেন না ।

মাত্র ২৩ বছর বয়সী আদিবাসী ওই রোগিনী ঝাড়খন্ডের ম্যাসাঞ্জোরের বাসিন্দা। রোগিনীর গত ৪-৫ মাস ধরে HIV রোগের চিকিৎসা চলছে। বিগত প্রায় ২ মাস যাবৎ তিনি পাকস্থলীর সমস্যার কারণে কোনও খাবার খেতে পারছিলেন না ।

মাত্র ২৩ বছর বয়সী আদিবাসী ওই রোগিনী ঝাড়খন্ডের ম্যাসাঞ্জোরের বাসিন্দা। রোগিনীর গত ৪-৫ মাস ধরে HIV রোগের চিকিৎসা চলছে। বিগত প্রায় ২ মাস যাবৎ তিনি পাকস্থলীর সমস্যার কারণে কোনও খাবার খেতে পারছিলেন না ।

  • Share this:

Supratim Das

#সিউড়ি: HIV পজিটিভ ক্যান্সার আক্রান্ত রোগিনীর সফল অস্ত্রোপচার হল বীরভূমের সিউড়ির বেসরকারি নার্সিংহোমে । আপাতত সুস্থ রোগিনীকে কয়েকদিন পরেই ছুটি দেওয়া হবে। HIV আক্রান্ত ওই রোগিনীর পাকস্থলীতে ক্যান্সার হয়েছিল । এমতাবস্থায় অস্ত্রোপচার করা যথেষ্টই ঝুঁকিপূর্ণ ছিল বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। মাত্র ২৩ বছর বয়সী আদিবাসী ওই রোগিনী ঝাড়খন্ডের ম্যাসাঞ্জোরের বাসিন্দা। রোগিনীর গত ৪-৫ মাস ধরে HIV রোগের চিকিৎসা চলছে। বিগত প্রায় ২ মাস যাবৎ তিনি পাকস্থলীর সমস্যার কারণে কোনও খাবার খেতে পারছিলেন না ।

ঝাড়খন্ডের বিভিন্ন জায়গায় দেখিয়েছেন কিন্তু কোনও সুরাহা হয়নি। অবশেষে উনি সিউড়িতে এসে ওই নার্সিংহোমের চিকিৎসক ডাঃ অভিদীপ দে’কে দেখান এবং টেষ্ট করার পরে রোগিনীর পাকস্থলীর ক্যান্সারটি ধরা পরে। রোগিনীর শরীরে রক্ত কম থাকায় প্রথমেই ওই রোগিনীকে ৪ ইউনিট রক্ত দেওয়া হয়। এরপর ওই নার্সিংহোমের চিকিৎসক ডাঃ অভিদীপ দে’র নেতৃত্বে সিউড়ির মডার্ন নার্সিংহোমে ওই যুবতীর সার্জারি সম্পন্ন হয়।

অত্যন্ত জটিল এই অপারেশনটির নাম D2 subtotal gastrectomy with Roux-en-Y gastrojejunostomy (ডি২ সাবটোটাল গ্যাস্ট্রেক্টমি এ্যান্ড রু-এন-ওয়াই গ্যাস্ট্রোজেজুনোস্টমি)। অপারেশনটি করতে প্রায় সাড়ে-চার ঘন্টা থেকে পাঁচ ঘন্টা সময় লেগেছে। উপরন্তু, যেহেতু রোগিনী HIV তে আক্রান্ত তাই অপারেশনটি করা হয়েছে universal precaution kit (য়ুনিভার্সাল প্রিকোশন কিট) ব্যবহার করে, যাতে কোনওভাবে রোগিনীর শরীর থেকে সার্জেন বা অপারেশন টিমের কারও শরীরে সংক্রমণ না ছড়ায়। সেই একই কারণে নূন্যতম রক্তক্ষরণের কথা মাথায় রেখে সম্পূর্ণ অপারেশনটি করা হয়েছে অত্যাধুনিক surgical stapler (সার্জিক্যাল স্টেপ্লার) এবং vessel sealing device (ভেসেল সিলিং ডিভাইজ) এর সাহায্যে। অপারশনের পর অপারেশন থিয়েটার করা হয়েছে জীবাণুমুক্ত।

অপারেশনের পর রোগিনী আপাতত সুস্থ আছেন। বায়োপ্সি রিপোর্ট আসার পরে পরবর্তী চিকিৎসা প্রণালী নির্ধারন করা হবে। আপাতত রোগিনী খাওয়া দাওয়া শুরু করেছেন। সুস্থতা বেড়ে চলায় রোগিনীকে ছুটি দেওয়ার কথা চিন্তা ভাবনা করছেন চিকিৎসকরা। তবে ঝুঁকিপূর্ণ এই অপারেশন করে খুশি চিকিৎসক ও অপারেশনের গোটা টিম। কারণ ক্যান্সার অপারেশন করে এইচআইভি রোগীকে বাঁচিয়ে তোলা সিউড়ির মতো মফঃস্বল শহরে হয়নি এর আগে।

Published by:Simli Raha
First published: