দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আটকে পড়া শ্রমিকদের হাতে নতুন জামা কাপড় তুলে দিল পুলিশ

আটকে পড়া শ্রমিকদের হাতে নতুন জামা কাপড় তুলে দিল পুলিশ

ওই সমস্ত ব্যক্তি একই পোশাকে রয়েছেন প্রায় চার দিন ধরে। তাই তাদের পরিচ্ছন্নতার কথা চিন্তা করে ভাতার থানার পুলিশ আধিকারিক প্রণব কুমার বন্দ্যোপাধ্যায় কোয়ারেন্টাইন থাকা ৭২ জনের হাতে আজ নতুন জামা কাপড় তুলে দিলেন।

  • Share this:

#ভাতার: তাঁরা জেলা বা ভিন রাজ্যের মানুষ। তাঁরা পরিযায়ী শ্রমিক। কাজ হারিয়ে পায়ে হেঁটে ঘরে ফিরছিলেন তাঁরা। তাঁদের খাওয়া দাওয়া, চিকিৎসার ব্যবস্থাই শুধু নয়, এবার তাদের হাতে নতুন পোশাকও তুলে দিল পুলিশ। পূর্ব বর্ধমানের ভাতার থানার পুলিশের এই মানবিক উদ্যোগে অভিভূত কোয়ারান্টিনে থাকা বাহাত্তর জন শ্রমিক।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে  আতঙ্কে গোটা বিশ্ব। মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশ জুড়ে লক ডাউন চলছে। যার ফলে বহু মানুষ বাড়ি ফেরার তাগিদে পায়ে হাঁটতে শুরু করেছেন।সে রকমই এই বাহাত্তর জন ফিরছিলেন ঝাড়খণ্ডে। তাদের নিজের বাড়িতে। বাস ট্রেন নেই। অন্যান্য যান বাহনেরও চলাচল বন্ধ। পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন তাঁরা। ভাতার থানার পুলিশ তাদের আটকে কোয়ারেন্টাইনে রেখে দিয়েছে। তাঁরা এখন রয়েছেন ভাতারের আমারুন হাইস্কুলে।

ওই সমস্ত ব্যক্তি একই পোশাকে রয়েছেন প্রায় চার দিন ধরে। তাই তাদের পরিচ্ছন্নতার  কথা চিন্তা করে ভাতার থানার পুলিশ আধিকারিক প্রণব কুমার বন্দ্যোপাধ্যায় কোয়ারেন্টাইন থাকা ৭২  জনের হাতে  আজ নতুন জামা কাপড় তুলে দিলেন।পুলিশের এই মানবিক উদ্যোগে খুশি হয়েছেন  ঝাড়খণ্ডের এই বাসিন্দারা।

পুলিশের পাশাপাশি এই লক ডাউনের মাঝেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বিভিন্ন সংস্থা। ভাতার ব্লকে সরকারিভাবে ও বিভিন্ন ক্লাবের উদ্যোগে লক ডাউনে গৃহবন্দি দরিদ্র মানুষদের কথা ভেবে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে নানান খাদ্য সামগ্রী। এবার ভাতারের আড়রা উদীয়মান সংঘের  উদ্যোগে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া হল দুপুরের খাবার।

ভাত, ডাল ও আলু পোস্ত। খাবার পেয়ে খুশি এলাকার মানুষজন ।চারটি গ্রামের দুঃস্থ দরিদ্র পুরুষ মহিলাদের  ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়া হয় দুপুরের ভাত। ক্লাব সহ সভাপতি কৃষ্ণ গোপাল মন্ডল জানান ,আমরা বেশ কয়েকদিন ধরে  মুড়ি, ঘুগনি পৌঁছে  দিয়েছিলাম বাড়ি বাড়ি। আজ থেকে দুপুরের ভাত দিচ্ছি। আগামী দিনেও এই অভিযান চলবে।

SARADINDU GHOSH

Published by: Arindam Gupta
First published: April 6, 2020, 5:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर