West Bengal Assembly Election 2021: প্রার্থীর বিরুদ্ধে পোস্টার দলেরই একাংশের, জামালপুরে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে

West Bengal Assembly Election 2021: প্রার্থীর বিরুদ্ধে পোস্টার দলেরই একাংশের, জামালপুরে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে

জামালপুরে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে

পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রার্থী দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল অব্যাহত। ফের সেই কোন্দল প্রকাশ্যে এলো জামালপুরে।

  • Share this:

#পূর্ববর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রার্থী দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল অব্যাহত। ফের সেই কোন্দল প্রকাশ্যে এলো জামালপুরে। এবার তৃণমূল কংগ্রেসের ভূমিপুত্র প্রার্থী চেয়ে পোস্টার পড়লো জামালপুর বিধানসভা কেন্দ্রে।

জামালপুরের বাসস্ট্যান্ড মোড়, শুড়ে কালনা বাজার, জামালপুর বাজার ও হালাড়া মোড় এলাকায় আজ পোস্টারগুলি দেখতে পান স্থানীয়রা। পোস্টারে স্পষ্টভাবেই উল্লেখ করা হয়েছে, ভূমিপুত্র প্রার্থী চাই। তৃণমূলের পক্ষ থেকে দেওয়া পোস্টারে লেখা হয়েছে, প্রার্থী অলোক কুমার মাঝিকে মানছি না, মানব না।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতর। তৃণমূল নেতা মেহমুদ খান জানিয়েছেন, সব আসনেই তৃণমূল প্রার্থী হলেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। তাঁর আশীর্বাদ প্রাপ্ত প্রত্যেক প্রার্থীকেই তৃণমূল কর্মীরা জেতাবেন, এই বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে এই পোস্টার কারা দিয়েছে তা জানা নেই। বিজেপি নেতা রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, এটা তৃণমূলের একান্তভাবেই আভ্যন্তরীণ ব্যাপার। এটা তাদেরই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল।

প্রসঙ্গত, প্রার্থী তালিকা ঘোষণার আগেই ভূমিপুত্র প্রার্থী চেয়ে জামালপুরের বিভিন্ন এলাকায় পোস্টার দেওয়া হয়েছিল। গত বিধানসভা নির্বাচনে এই আসনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী ছিলেন উজ্জ্বল প্রামাণিক। দলের গোষ্ঠী কোন্দলের কারণে তাঁকে হারতে হয়েছিল বলে উজ্জ্বল প্রামাণিকের অনুগামীরা দাবি করেছিলেন। এলাকায় উজ্জ্বল প্রামাণিকের সঙ্গে মেহমুদ খান গোষ্ঠীর বিবাদের কথা কান পাতলেই শোনা যায়।

গত বিধানসভা নির্বাচনে গলসি কেন্দ্র থেকে জয়ী হওয়া অলোক মাঝিকে জামালপুরের প্রার্থী করেছে শাসক দল। প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর মেহমুদ খানকে ব্লক সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। মেহমুদ খান দায়িত্ব নিয়ে দলকে এলাকার ভোট বৈতরণী পার করতে পারেন কিনা তা দেখে নিতে চাইছে জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব। ঠিক এই পরিস্থিতিতে মেহমুদ খানের বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে বলে তৃণমূল কংগ্রেসের নিচুতলার কর্মী-সমর্থকরা মনে করছেন। ভোটের প্রচার তুঙ্গে ওঠার মুখে এই পোস্টারকে কেন্দ্র করে এলাকায় তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে চলে আসায় যথেষ্টই অস্বস্তিতে শাসক দলের জেলা নেতৃত্ব।

Saradindu Ghosh

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: