Bengal Poll Violence: দিলীপের রোড শো ঘিরে রণক্ষেত্র বর্ধমান, তছনছ তৃণমূলের পার্টি অফিস! জ্বলল আগুন

Bengal Poll Violence: দিলীপের রোড শো ঘিরে রণক্ষেত্র বর্ধমান, তছনছ তৃণমূলের পার্টি অফিস! জ্বলল আগুন

আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ তৃণমূলের৷

বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সন্দীপ নন্দীর সমর্থনে এ দিন বর্ধমান শহরের পাওয়ার হাউস মোড় থেকে পার্কাস রোড মোড় পর্যন্ত রোড শো করেন দিলীপ ঘোষ৷

  • Share this:

#বর্ধমান: দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) রোড শো ঘিরে বর্ধমানের রসিকপুরে ধুন্ধুমার কাণ্ড৷ বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে সংঘর্ষে চরম উত্তেজনা এলাকায়৷ ভাঙচুর করা হয় বেশ কয়েকটি বাইক এবং দোকানে৷ এই ঘটনায় পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি (BJP) এবং তৃণমূল (TMC)৷

বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সন্দীপ নন্দীর সমর্থনে এ দিন বর্ধমান শহরের পাওয়ার হাউস মোড় থেকে পার্কাস রোড মোড় পর্যন্ত রোড শো করেন দিলীপ ঘোষ৷ এই রোড শো রসিকপুর মোড় দিয়ে যাওয়ার সময়ই উত্তেজনার সূত্রপাত৷ স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে থাকা শাসক দলের কর্মী, সমর্থকদের সঙ্গে প্রথমে বচসা শুরু হয় বিজেপি কর্মীদের৷ ক্রমে তা হাতাহাতির চেহারা নেয়৷ তৃণমূলের অভিযোগ, এর পর তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে হামলা চালান বিজেপি সমর্থকরা৷ তৃণমূলের কার্যলয়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ৷

বিজেপি-র পাল্টা অভিযোগ, তৃণমূলের পার্টি অফিস থেকেই বিজেপি সমর্থকদের উদ্দেশে কটূক্তি করা হয়৷ তার থেকেই ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা৷ ঘটনাস্থলে পুিলশ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকলেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা যায়নি৷ প্রসঙ্গত কিছুদিন আগে এই রসিকপুরেই বোমা বিস্ফোরণে মৃত্য়ু হয়েছিল এক শিশুর৷

পূর্ব বর্ধমানের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথের অভিযোগ, বিজেপি-ই সর্বত্র প্ররোচনা ছড়াচ্ছে৷ এ দিন রসিকপুরেও একই ঘটনা ঘটেছে৷ এ দিনের ঘটনার জন্য বিজেপি রাজ্য সভাপতির দিকেই আঙুল তুলেছেন স্বপন দেবনাথ৷ যদিও এই ঘটনায় এখনও বিজেপি-র কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷

বিজেপি-র হামলার প্রতিবাদে পাল্টা বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মীরাও৷ রসিকপুর মোড় অবরোধ করেন তাঁরা৷ রাস্তার উপরে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়৷ বিজেপি-র সমস্ত ব্যানার, পতাকা খুলে ফেলা হয়৷ এই ঘটনার জেরে বর্ধমান শহরের অন্যত্রও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খায় পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ রসিকপুর মোড় হয়েই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে যাওয়ার মূল রাস্তা৷ অবরোধের জেরে আটকে পড়ে একাধিক অ্যাম্বুল্যান্স৷

Saradindu Ghosh

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

লেটেস্ট খবর