'আমার সিঁদুরের জোরে বেঁচেছে স্বামী।' দাবি বারাসত পুরসভার নিহত কাউন্সিলরের গাড়ির চালকের স্ত্রীর

'আমার সিঁদুরের জোরে বেঁচেছে স্বামী।' দাবি বারাসত পুরসভার নিহত কাউন্সিলরের গাড়ির চালকের স্ত্রীর
photo source collected

তদন্ত হোক প্রকৃত সত্য সামনে আসুক, দাবি বারাসাত পুরসভার নিহত কাউন্সিলরের চালক দেব কুমারদের স্ত্রী মুনমুন দের।

  • Share this:

#বারাসত: তদন্ত হোক প্রকৃত সত্য সামনে আসুক, দাবি বারাসাত পুরসভার নিহত কাউন্সিলরের চালক দেব কুমারদের স্ত্রী মুনমুন দের।শুক্রবার হুগলীর চন্ডীতলা থানায় পথ দূর্ঘটনায় নিহত কাউন্সিলরের স্ত্রী মৌমিতা ভট্টাচার্য অভিযোগ দায়ের করেন এই দূর্ঘটনায় তাঁর স্বামী ও দেওয়রের মৃত্যুর পিছনে ষড়যন্ত্র রয়েছে। তার সঠিক তদন্তের দাবী তোলেন।তাঁর অভিযোগ ঐ গাড়িতে চালক দেব কুমার দে তাঁর স্বামী প্রদ্যুৎ ভট্টাচার্য ও দেওর প্রনব ভট্টাচার্য ছিলেন।ট্রাক্টরের পিছনে পুরসভার বোলেরো গাড়ি ধাক্কা মারে গত রবিবার সন্ধ্যায়। ঘটনাস্থলে মারা গেলেন কেবল সাওয়ারী দুজন।

মাথায় চোট নিয়ে দূর্ঘটনার দুদিনের মধ্যেই বাড়ি চলে এসেছেন চালক দেব কুমার দে। এই দিন বারাসাত পুরসভার ২৩ নং ওয়ার্ডের সত্য নারায়ন পল্লীর বাড়িতে গিয়ে দেখা গেল মাথায় ব্যান্ডেজ নিয়ে শুয়ে আছেন দেব কুমার দে।পরিবারের দাবী এখনও ট্রমাটাইজ হয়ে আছেন তিনি। কোন কথা বলতে পারছেন না। অভিযুক্ত চালকের স্ত্রী মুনমুন দের দাবী তাঁর সিঁথির সিঁদুরের জোরেই স্বামী তার বেঁচে আছে। আর নিহত কাউন্সিলর স্ত্রীর অভিযোগ নিয়ে তাঁর মত, স্বামী ও দেওর হারিয়ে শোকসন্ত এক মহিলা অভিযোগ দায়ের করেছে। তাই সঠিক তদন্ত  হোক । তাহলেই প্রমাণ হয়ে যাবে তাঁর স্বামী নির্দোষ। অভিযুক্ত চালকের ভাই সুবীর দের দাবী তার দাদা গত ৩৪ বছর ধরে পুরসভার গাড়ি চালাচ্ছে। মাত্র ৫ বছর আগে পার্মানেন্ট হন।সি আই সি প্রদ্যুৎ ভট্টাচার্যের কাছে বিশ্বস্ত চালক ছিল তাঁর দাদা।সুবীর দের দাবী তাঁর দাদা এতটাই আস্থা ভাজন চালক ছিলেন নিহত কাউন্সিলর এর কাছে, যে তার বাচ্চাকে স্কুলে দিয়ে আসত প্রতিদিন। অভিযোগ দায়ের নিয়ে চিন্তিত নন তারা। বারাসাত পুরসভার  দূর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়ির চালকের পরিবারের আক্ষেপ এমন দূর্ঘটনায় তাঁর স্বামীর মৃত্যু হতে পারত। কপালের জোরে তিনি বেঁচে আছেন। তাঁর চিকিৎসার জন্য কোন সাহায্য আসেনি। নিহত কাউন্সিলর স্ত্রীর অভিযোগ দায়েরকে সমবেদনা জানিয়ে তাঁরা দাবী তুলছেন প্রকৃত তদন্তের।

RAJORSHI ROY
First published: February 22, 2020, 5:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर