Home /News /south-bengal /
Bangla News | Renu Khatun: মাত্র ৫০০ টাকায় কাটা হয় রেণু খাতুনের হাতের কবজি! গ্রেফতার আরও দুই দুষ্কৃতী!

Bangla News | Renu Khatun: মাত্র ৫০০ টাকায় কাটা হয় রেণু খাতুনের হাতের কবজি! গ্রেফতার আরও দুই দুষ্কৃতী!

Bangla News | Renu Khatun: কেতুগ্রামে স্ত্রীর হাত কেটে নেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করা হল মুর্শিদাবাদ থেকে।

  • Share this:

 #কেতুগ্রাম: কেতুগ্রামে স্ত্রীর হাত কেটে নেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করা হল মুর্শিদাবাদ থেকে। বৃহস্পতিবার ভরতপুর থানার তালগ্রামের নদীপাড়া থেকে  দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের নাম আসরফ আলি সেখ ও হাবিব সেখ। জানা গিয়েছি স্ত্রীর হাত কাটার সময় মূল অভিযুক্ত স্বামী শের মহম্মদ সেখ দুই দুষ্কৃতীকে ভাড়া করে নিয়ে গিয়েছিল। ধৃতদের কাটোয়া মহকুমা আদালতে তোলা হলে ৬দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। কেতুগ্রামে স্ত্রী রেণু হাত কেটে নেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী শের মহম্মদ সেখকে আগেই গ্রেফতার করে পুলিশ।

তদন্তে জানা যায় স্ত্রীর হাত কাটার সময় আরও  দুই-জন দুষ্কৃতীকে ভাড়া করে নিয়ে গিয়েছিল স্বামী শের মহম্মদ সেখ। দুষ্কৃতীদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু করে অভিযুক্ত দুই দুষ্কৃতীকে মুর্শিদাবাদ থেকে গ্রেফতার করল পুলিশ। বৃহস্পতিবার ভরতপুর থানার তালগ্রামের নদীপাড়া থেকে আসরফ আলি সেখ ও হাবিব সেখকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা যায় স্ত্রীর হাত কাটার জন্য মাসতুতো ভাই চাঁদ মহম্মদ মারফত দুই দুষ্কৃতীকে ভাড়া করেছিল শের মহম্মদ। তবে ধৃতরা জানিয়েছে তারা আদৌ জানত না স্ত্রীর কবজি কেটে নেওয়া হবে। ৫হাজার টাকার চুক্তি হলেও তারা মাত্র ৫০০টাকা হাতে পেয়েছিল। ধৃতদের কাটোয়া মহকুমা আদালতে তোলা হলে ৬দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

তবে ধৃতদের পরিবারের দাবি তারা কেউ এই ঘটনায় যুক্ত নেই, মিথ্যা অভিযোগে ফাসানো হচ্ছে। ধৃত হাবিব সেখের দিদি মমতাজ বেগম বলেন, আমরা বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎই পুলিশ এসে আমাদের বাড়িতে হানা দেয়। আমরা কিছু বুঝতে পারছিলাম না। পুলিশদের জানতে চাইলেও আমাদের কেউ বলছিল না । কি কারণে আমাদের বাড়িতে পুলিশ হানা দিয়েছে। আমার ভাই উপরের ঘরে ছিল। ভাইয়ের নাম ধরে ডাকাডাকি করছিল। তারপরেও পুলিশ আমার ভাইকে ধরে নিয়ে চলে যায়। আমাদের কেউ জিজ্ঞাসাবাদ করে। তবে আমার ভাই এইরকম কাজ করতে পারে না। ওকে ফাসানো হচ্ছে। ধৃত আসরফ আলির মা আয়েশা বিবি বলেন, আমার ছেলে সম্পূর্ণ নির্দোষ। ও বাড়িতেই ছিল। মিথ্যা অভিযোগে আমার নিরপরাধ ছেলেকে ফাঁসানো হয়েছে।

Pranab Kumar Banerjee
Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Ketugram, Renu Khatun

পরবর্তী খবর