‘আমার যা গিয়েছে তা গিয়েছে’...যুদ্ধের বিপক্ষে মন্তব্য করায় ট্রোলড বাবলু সাঁতরার স্ত্রী মিতা সাঁতরা

‘আমার যা গিয়েছে তা গিয়েছে’...যুদ্ধের বিপক্ষে মন্তব্য করায় ট্রোলড বাবলু সাঁতরার স্ত্রী মিতা সাঁতরা
Mita Santra pays her final homage to husband Bablu Santra as their daughter Piyal Santra looks on. (Image: Reuters)

ভারতের এই প্রত্যাঘাতে যখন দেশবাসীর মুখে যুদ্ধের স্লোগান, তখন উল্টো সুরে কথা বলায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হতে হল শহিদপত্নীকে ৷

  • Share this:

#বাউড়িয়া: যুদ্ধ হলে শুধু আবার কোনও মায়ের কোল খালি হবে, স্ত্রী তাঁর প্রিয়তমকে হারাবে, সন্তান হারাবে তাঁর বাবাকে... ৷ এমনটাই মনে করেন পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় শদিহ বাবলু সাঁতরার স্ত্রী মিতা সাঁতরা ৷ গত ১৪ ফেব্র‌ুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানের কনভয়ে বিস্ফোরণে প্রাণ গিয়েছিল ৪২ জন সেনা জওয়ানের ৷ শহিদ জওয়ানের তালিকায় নাম উঠেছে বাউড়িয়ার বাবলু সাঁতরারও ৷ ইতিমধ্যেই ওই ঘটনার প্রত্যুত্তর দিয়েছে ভারতীয় বায়ু সেনা ৷ পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকে গুঁড়িয়ে গিয়েছে একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি ৷ ভারতের এই প্রত্যাঘাতে যখন দেশবাসীর মুখে যুদ্ধের স্লোগান, তখন উল্টো সুরে কথা বলায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হতে হল শহিদপত্নীকে ৷ কিন্তু এরপরেও নির্বিকার মিতা ৷ জওয়ানের স্ত্রীর মতোই প্রবল মানসিক দৃঢ়তায় তিনি নিজের অবস্থানে স্থির রইলেন ৷

বললেন, ‘‘এ নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া আমার কাছ থেকে পাবেন না ৷ তবে জওয়ানদের আরও নিরাপত্তা দেওয়া উচিত ছিল সরকারের ৷ সেনার গাড়িতে আইইডি জ্যামার বসানো যেত না?’’- প্রশ্ন তুলে দিলেন নিহত সেনার স্ত্রী ৷
শুধু তাই নয় মিতা এদিন বলেন, ‘‘১৪ ফেব্রুয়ারির পর আর কোনও কিছুই আমাকে স্পর্শ করতে পারে না ৷ আমার যা গিয়েছে তা গিয়েছে ৷ তাই যে যা খুশি বলতে পারে ৷ আমি ভয় পাই না ৷’’ আধুনিক ইতিহাস নিয়ে এমএ করেছেন মিতা ৷ পেশায় তিনি স্কুল শিক্ষিকা ৷ ছয় বছরের মেয়েকে আঁকড়ে ধরে তিনি বললেন, ‘‘আমাকে সিআরপিএফ জয়েন করার অফার দেওয়া হয়েছে ৷ কিন্তু সেটা করব কিনা এখনও স্থির করিনি আমি ৷ কারণ এই চাকরিতে বদলি হতে হবে ৷ কিন্তু ঘরে আমার বৃদ্ধ শাশুড়ি মা রয়েছেন ৷ আমি তাঁর দেখাশোনা করি ৷ তাই রাজ্য সরকারের চাকরি চাই আমি ৷ সেই আশ্বাসও আমাকে সরকারের তরফে দেওয়া হয়েছে ৷’’

দেখুন আরও গ্যালারি
First published: February 28, 2019, 7:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर