corona virus btn
corona virus btn
Loading

পেরেক লাগানো লাঠি দিয়ে ক্ষুধার্ত হনুমানের মাথায় বার বার আঘাত, রক্তাক্ত অবস্থায় ঢলে পড়ল মৃত্যুর কোলে

পেরেক লাগানো লাঠি দিয়ে ক্ষুধার্ত হনুমানের মাথায় বার বার আঘাত, রক্তাক্ত অবস্থায় ঢলে পড়ল মৃত্যুর কোলে
ফাইল ছবি

হনুমানটির মাথায় গভীর ক্ষত থেকে দীর্ঘক্ষণ রক্তক্ষরণ হওয়ায়, অনেক চেষ্টার পরও তাকে বাঁচান যায়নি। রবিবার বিকালে হনুমানটির মৃত্যু হয়।

  • Share this:

#সাঁকরাইলঃ খাবারের খোঁজে আসা হনুমানকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে সাঁকরাইল থানার ঝড়হাট এলাকায়। এলাকার বাসিন্দা শিবপ্রসাদ ঘোষের বাড়িতে দলছুট একটি প্রাপ্তবয়স্ক হনুমান  খাবারের খোঁজে এলাকায় ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। এবাড়ি-ওডবাড়ি ঘুরে বেড়াচ্ছিল হনুমানটি। অভিযোগ শিবপ্রসাদ ঘোষের বাড়িতে গেলে হনুমানটিকে লাঠি উঁচিয়ে তাড়ানোর চেষ্টা করা হয়। দীর্ঘক্ষণ চেষ্টা করার পরও হনুমানটি না যাওয়ায় খাবারের  লোভ দেখিয়ে বাঁশ দিয়ে হনুমানটির মাথায় আঘাত করা হয়। বাঁশটির মধ্যে পেরেক থাকায় এবং বারংবার আঘাতের কারণে গুরুতর আহত হয় হনুমানটি। এরপর  রক্তাক্ত অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ পরে থাকার পর স্থানীয় এক পশুপ্রেমী সুধীর মাজির চেষ্টায় উদ্ধারের পর শুরু হয় চিকিৎসা। কিন্তু হনুমানটির মাথায় গভীর ক্ষত থেকে দীর্ঘক্ষণ রক্তক্ষরণ হওয়ায়, অনেক চেষ্টার পরও তাকে বাঁচান যায়নি। এদিন বিকালে হনুমানটির মৃত্যু হয়।

পশুপ্রেমী সুধীর মাজি সাঁকরাইল থানায় অভিযুক্ত শিবপ্রসাদ ঘোষের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সুবীর মাজির অভিযোগ, অভিযুক্ত শিবপ্রসাদ ঘোষকে তিনি সঙ্গে করেই থানায় গেলেও দীর্ঘক্ষণ তাঁকে বসিয়ে রাখা হয়। এমনকি  অভিযোগ নিতেও অস্বীকার করে। এরপর নিজের দোষ স্বীকার করলেও তার বিরুদ্ধে পুলিশ আইনি পদক্ষেপ নিতে রাজি হয়নি পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ বসিয়ে রেখে ঘন্টাখানেক পর অভিযোগ নেন। অভিযোগের তদন্তে নেমে অভিযুক্ত শিবপ্রসাদ ঘোষকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিকে, মৃত হনুমানটির ময়না তদন্ত করা হবে।  বন দফরের বন্যপ্রাণ বিভাগের তরফে আগামিকাল করা হবে ময়না তদন্ত। ঘটনার বিষয় রাজ্যের  বন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "খুবই দুঃখজনক ও ঘৃণ্য মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন অভিযুক্ত। পুলিশকে বলব অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সবরকম আইনি ব্যবস্থা নিতে।" হনুমানটির ময়না তদন্ত ও শেষকৃত্য বনদফতর করবে। এই ঘটনার প্রতিবাদ ও অভিযোগ দায়ের করার জন্য পশুপ্রেমিকে সুবীর মাজিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বন দফতরের কর্তারা। তাদের দাবি, এই ধরণের ঘটনা অনেকেই দেখে এবং তা নিয়েপ্রতিবাদ করেন না। তার সুবীর মাজির কাজ প্রশংসাযোগ্য।

Debasish Chakraborty

First published: April 26, 2020, 11:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर