নতুন করে আক্রান্ত ৯ জন, পূর্ব বর্ধমানে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো ২৫০

বর্ধমান শহর লাগোয়া বামচাঁদাইপুরে করোনা হাসপাতালে ১৬৮ টি বেড রয়েছে। যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে কয়েক দিন পর সেখানে স্থান সংকুলান হবে কিনা তা নিয়েও চিন্তা বাড়ছে।

বর্ধমান শহর লাগোয়া বামচাঁদাইপুরে করোনা হাসপাতালে ১৬৮ টি বেড রয়েছে। যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে কয়েক দিন পর সেখানে স্থান সংকুলান হবে কিনা তা নিয়েও চিন্তা বাড়ছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে ৯ জন করোনা আক্রান্ত হলেন। এই নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হলো ২৫৭ জন। এদের মধ্যে ১৮৮ জন করোনা হাসপাতালে চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। ৬৮  জনকে বর্ধমানের করোনা হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা চালানো হচ্ছে। এদিন পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এক জনের মৃত্যু হয়েছে।

বর্ধমান শহর লাগোয়া বামচাঁদাইপুরে করোনা হাসপাতালে ১৬৮ টি বেড রয়েছে। যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে  করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে কয়েক দিন পর সেখানে স্থান সংকুলান হবে কিনা তা নিয়েও চিন্তা বাড়ছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, এখন করোনা হাসপাতালে আটষট্টি জন ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে বেশ কয়েক জন কয়েক দিনের মধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে। বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, প্রয়োজন পড়লে নতুন কোনও বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ করে সেখানে করোনাআক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একাংশেও করোনা রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থা হতে পারে। সব রকম পরিকল্পনাই ভাবনার মধ্যে রয়েছে। পরিস্থিতি বিচার করে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে তিন জন শহর এলাকার বাসিন্দা। বর্ধমান পৌরসভা এলাকায় একজন রয়েছেন। কালনা শহরে নতুন করে একজন আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন করে করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে মেমারি শহর এলাকাতেও। এছাড়া কালনা দু নম্বর ব্লকে এক জন, মেমারি এক নম্বর ব্লকের দুজন এবং মেমারি দু নম্বর ব্লক তিন জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকায় সচেতনতা বাড়ানোর উপর নতুন করে জোর দিচ্ছে জেলা প্রশাসন। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে, আশা কর্মী ও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের বাড়ি বাড়ি নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। করোনার উপসর্গ নিয়ে কেউ বাড়িতে থাকলে তৎক্ষণাৎ তাদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে গিয়ে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। সেই সঙ্গে প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় করোনা সতর্কতায় সচেতনতা বাড়াতে মাইকিং করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: