corona virus btn
corona virus btn
Loading

আজও অন্ধকার, এই রাজ্যেই ডাইনি অপবাদে একদল ওঝার ঝাড়ফুঁক, যুবতীকে প্রকাশ্যেই শারীরিক নির্যাতন

আজও অন্ধকার, এই রাজ্যেই ডাইনি অপবাদে একদল ওঝার ঝাড়ফুঁক, যুবতীকে প্রকাশ্যেই শারীরিক নির্যাতন
এভাবেই চূড়ান্ত শারীরিক নিপীড়ন সইতে হল এক তরুণীকে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই মহিলার খিঁচুনি রোগের সমস্যা রয়েছে। চিকিৎসা চলছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: একজন দু'জন নয়, একেবারে একদল মহিলা ওঝা। অসুস্থ এক মহিলাকে মাঝে রেখে চলছে ঝাড়ফুঁক। কখনও চুলের মুঠি ধরে ঘোরানো, আবার কখনও শুধুই হাঁটিয়ে নিয়ে যাওয়ার।  চারদিকে দাঁড়িয়ে ভিড় করে সেই 'ভূত ছাড়ানো' দেখলেন স্থানীয়দের অনেকেই। অসুস্থ মহিলাকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে দীর্ঘক্ষণ ধরে চলল ঝাড়ফুঁকের নামে নানা নির্যাতন। ফল, আরও অসুস্থ হয়ে পড়লেন ওই মহিলা। পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনার আনুখালের  কোবিলপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। রাতে পুলিশ গিয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে নিয়ে এসে কালনা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করে।

এই বিজ্ঞানের প্রবল অগ্রগতির দিনেও সমাজের কিছু কিছু অংশে এখনও জাঁকিয়ে বসে রয়েছে কুসংস্কার। তারই জেরে চলল ডাইনি অপবাদ দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা ঝাড়ফুঁকের নামে প্রবল মানসিক শারীরিক নির্যাতন। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, খেতমজুর পরিবারের বছর পঁচিশের ওই মহিলা কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। অসুস্থ অবস্থায় তিনি অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন।

তিনি একটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন। চিকিৎসা করানোর জন্য সেখান থেকে টাকাও নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু তাঁর আচরণ দেখে  গ্রামের কয়েকজন বিধান দেন, ডাইনি ভর করেছে ওই মহিলার ওপর। তাই তা ছাড়াতে চিকিৎসার বদলে ওঝা এনে ঝাড়ফুঁক করা প্রয়োজন। এলাকার বাসিন্দাদের চাপে ওঝা ডাকতে বাধ্য হন পরিবারের সদস্যরা। একদল মহিলা ওঝা এসে শুরু করে ঝাড়ফুঁক। এরপর ভূত ছাড়ানোর নামে চুলের মুঠি ধরে টানা, চড়-থাপ্পড় কিছুই বাদ যায়নি। ঘন্টার পর ঘন্টা ওঝার দল তাঁর ওপর নির্যাতন চালায়। তাতে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই মহিলা। এরপর কালনা থানার পুলিশ গিয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে নিয়ে এসে কালনা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই মহিলার খিঁচুনি রোগের সমস্যা রয়েছে। চিকিৎসা চলছে।কালনা থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় কারা কারা জড়িত তা জানার চেষ্টা চলছে। ওঝারা কোথা থেকে এসেছিল তার খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে। কুসংস্কার বন্ধে এলাকায় জোরদার প্রচার চালানোর পাশাপাশি বাসিন্দাদের সচেতন করতে শিবির করা হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

Published by: Arka Deb
First published: August 19, 2020, 1:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर