Kanti Ganguly: হারেও দমবার পাত্র নন তিনি! আসছে ইয়াস, তৈরি হচ্ছেন 'বুড়ো' কান্তিও

তৈরি হচ্ছেন কান্তি গাঙ্গুলী

মানুষের কাজে নেমে পড়েছেন তৎকালীন বাম সরকারের মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় (Kanti Ganguly)। আমফান (Cyclone Amphan) হোক বা আসতে চলে ইয়াস (Cyclone Yaas), বিরাম নেই কান্তির।

  • Share this:

    রায়দিঘি: 'আয়লা' (Cyclone Aila) নামের এক প্রবল দস্যুর দাপটে সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ অংশের গ্রাম তখন তছনছ হয়ে গিয়েছে। আর ঠিক তখনই দেখা মিলেছিল সেই দৃশ্যের। ধুতি গুটিয়ে কাদায় মাখামাখি হয়ে মানুষের কাজে নেমে পড়েছেন তৎকালীন বাম সরকারের মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় (Kanti Ganguly)। সেই দৃশ্য সুন্দরবনের বহু গ্রামে আজও অমলিন। ২০০৯ সালে আয়লার সময়ে গ্রামে গ্রামে ঘুরে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে উদ্ধার, ত্রাণের কাজ করেছিলেন কান্তি। তারপর মন্ত্রিত্ব, রাজনৈতিক ক্ষমতা সবই একে-একে চলে গিয়েছে কান্তি বাবুর। কিন্তু অভ্যাসে কোনও বদল হয়নি তাঁর। আয়লা হোক, বুলবুল (Cyclone Bulbul) হোক, আমফান (Cyclone Amphan) হোক বা আসতে চলে ইয়াস (Cyclone Yaas), বিরাম নেই কান্তির। এবারও তাই তাঁকে নিয়েও আশায় আছে রায়দিঘিবাসী।

    এবারের বিধানসভা নির্বাচনে রায়দিঘি কেন্দ্র থেকে ফের হেরে গিয়েছেন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়। জিতেছেন তৃণমূলের অলোক জলদাতা। কিন্তু কাজে থেমে থাকছেন না কান্তি। ইতিমধ্যেই রায়দিঘিতে একটি কোভিড হাসপাতাল গড়ে তুলেছেন তিনি। আর 'ইয়াস' আসার আগে রাজ্য সরকারের ও মানুষের কাছে দুটি আবেদন করেছেন তিনি।

    ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, 'রাজ্য প্রতিবন্ধী সম্মিলনীর ত্রাণ কেন্দ্রর কাজ চলছে পুরোদস্তুর। আমি ফিরছি সুন্দরবনে ঝড়ের বিরুদ্ধে তৈরী হতে। রাজ্য সরকারের ও মানুষের কাছে দুটি আবেদন রয়েছে। ১: ফ্লাড শেল্টার এ মানুষকে আশ্রয় দেওয়ার আগে দেহের তাপমাত্রা দেখে নেওয়া হোক ও অসুস্থ সাধারণ মানুষের জন্য আলাদা আশ্রয় তৈরী করা হোক, যাতে গ্রামে করোনা আরো ছড়িয়ে না যায়। ২: মানুষ পানীয় ও দরকার পড়লে বৃষ্টির জল যেন জমা করে রাখেন কারণ বাঁধ ভাঙলে নোনা জল পান এর অযোগ্য।'

    উল্লেখ্য, 'আমফান' পরিস্থিতির সময়ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাতে লেখা চিঠি পাঠিয়েছিলেন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়। ঘূর্ণিঝড় মোকবিলায় রাজ্য যে নানা পদক্ষেপ করছিল, তার উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আয়লা মোকাবিলায় নিজের অভিজ্ঞতার কথা লিখেছিলেন তিনি। সুন্দরবন লাগোয়া অঞ্চলগুলিতে ঝড়ের পর পানীয় জল, পশুপাখি মরে সংক্রমণ ছড়ানো, স্বাস্থ্যকর্মীদের অপ্রতুলতা, নদীবাঁধে ভাঙন, খাদ্যসামগ্রীতে টানের মতো বাস্তবিক সমস্যাগুলি তুলে ধরে সমাধানের পথও বাতলে দিয়েছিলেন তিনি। এবার আসছে 'ইয়াস'। ঝড়ের নাম বদলেছে, কিন্তু বদলাননি কান্তি। সুন্দরবনের মানুষদের বাঁচাতে এখনও যেন দৌড়ে চলেছেন বৃদ্ধ।
    Published by:Suman Biswas
    First published: