Home /News /off-beat /
Sperm Donation: শুক্রাণু দান করে ৪৭ জন শিশুর জন্ম দিয়েছেন, তবু প্রেমিকা জুটছে না যুবকের!

Sperm Donation: শুক্রাণু দান করে ৪৭ জন শিশুর জন্ম দিয়েছেন, তবু প্রেমিকা জুটছে না যুবকের!

Sperm Donor: ৩০ বছর বয়সী গর্ডি ২২ বছর বয়সে স্পার্ম ডোনেশন শুরু করেছিলেন এবং এখন সারা বিশ্বে তাঁর ৪৭ জন শিশু রয়েছে

  • Share this:

    Sperm Donation: নিজের শুক্রাণু দান করে ৪৭ শিশুর জন্ম দিয়েছেন যুবক! কিন্তু কপাল মন্দ, এখনও প্রেমের জন্য কোনও সঙ্গীই খুঁজে পাচ্ছেন না তিনি। দ্য মিররের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার কাইল গর্ডি জানিয়েছেন, মহিলারা তাঁর কাছে শুক্রাণু চাইতে আসেন, কিন্তু তাঁর সঙ্গে প্রেম করতে কেউই আগ্রহী নন। ৩০ বছর বয়সী গর্ডি ২২ বছর বয়সে স্পার্ম ডোনেশন শুরু করেছিলেন এবং এখন সারা বিশ্বে তাঁর ৪৭ জন শিশু রয়েছে, আরও ১০ জন ভূমিষ্ঠ হওয়ার আপেক্ষায়। গর্ডি জানিয়েছেন, শুক্রাণু দান শুরু করার আগে চুটিয়ে ডেটিং করতেন তিনি। কিন্তু এখন তাঁর মনে হচ্ছে মহিলারা গর্ডির সঙ্গে ডেটিং করার বিষয়ে বেশ সতর্ক। স্পার্ম ডোনার গর্ডি জানান, শুরুর দিকে এত মহিলারা আগ্রহী দেখে অবাকই হয়েছিলেন গর্ডি। এই মহিলারা স্পার্ম ব্যাঙ্কে যেতেই পারতেন, কিন্তু তাঁরা তাঁদের সন্তানের জৈবিক বাবাকে জানতে চেয়েছিলেন, জানান গর্ডি।

    আরও পড়ুন- জেনেশুনেই মানুষের 'বিষ্ঠাগোলা জল' খেয়ে ভাইরাল এই ব্যক্তি! কিন্তু কেন?

    View this post on Instagram

    A post shared by Kyle Gordy (@kylegordy123)

    গর্ডি অনলাইনে তাঁর সন্তানদের ছবি শেয়ার করেছেন। তাঁর একটি ব্লগও রয়েছে, ‘বি প্রেগন্যান্ট নাউ’ যাতে সন্তান নিতে ইচ্ছুক মহিলাদের কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়।

    View this post on Instagram

    A post shared by Kyle Gordy (@kylegordy123)

    গর্ডি দ্য মিররকে জানান, তিনি অনেক মহিলাকেই নিজস্ব পরিবার শুরু করতে সাহায্য করেছেন, এতে তাঁর দুর্দান্ত অনুভব হয়। যে সমস্ত মহিলারা স্পার্ম ব্যাঙ্কে উপযুক্ত শুক্রাণু পান না তাঁরা নিয়মিত গর্ডির কাছে যান এবং এখনও পর্যন্ত ১,০০০ জনেরও বেশি মহিলা তাঁর বীর্য চেয়েছেন। গর্ডি এমন একজন সঙ্গীকে খুঁজছেন যিনি তাঁর স্পার্ম ডোনেশনের বিষয়টি জেনেই তাঁকে গ্রহণ করবে। কয়েকজন মহিলা আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন ঠিকই, তবে বিষয়টি তেমন এগোয়নি বলেই জানিয়েছেন গর্ডি।

    আরও পড়ুন- নিজের প্রস্রাব খেয়েই কমেছে 'ডিপ্রেশন', কমেছে বয়সও! আজব দাবি যুবকের

    গত বছরই ওরেগনের ২৪ বছর বয়সী জাভে ফর্সের একটি অদ্ভুত অভিজ্ঞতার কথা জানান। তিনি বলেন, ডেটিং অ্যাপে কারও সঙ্গে কথা বলতে ভয় পান তিনি। ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করার সময় তিনি সতর্ক থাকেন কারণ তাঁর বাবা একজন স্পার্ম ডোনার ছিলেন। এখনও পর্যন্ত ৫০০ বার শুক্রাণু দান করেছেন তিনি। জাভের ভয় হয়, ডেটিং অ্যাপে তাঁরই বাবার শুক্রাণুজাত কোনও বোনের প্রেমে পড়ে যেতে পারেন তিনি।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Sperm, Sperm Donor

    পরবর্তী খবর