বিজেপি সাংসদের বিপিএল রেশন কার্ড! তৃণমূলের অভিযোগের পরই শুরু চাপানউতোর

  • Share this:

    #বালুরঘাট: রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রেশন বিলি নিয়ে দূর্নীতি ও চাল চুরির অভিযোগ তুলেছে বিজেপি৷ এর মধ্যেই এবার খোদ বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে বি পি এল রেশন কার্ড থাকার অভিযোগ তুলল তৃনমূল। আর এই রেশন কার্ডের স্ট্যাটাস নিয়ে চাপানউতোরের জেরে ক্রমেই সরগরম হয়ে উঠছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার রাজনীতি। এই লকডাউনের বাজারে তৃনমূলের আই টি সেলের তরফে সোস্যাল মিডিয়ায় এই অভিযোগ তোলার পরেই কার্যত দিশেহারা জেলা বিজেপি। যদিও বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বিষয়টি খাদ্য দফতরের ভুল বলে দাবি করছেন৷ তিনি জানান যে তিনি নিজে রেশন তোলেন না বলে বিষয়টি তাঁর চোখে পড়েনি। বিষয়টি নজরে আসার সঙ্গে সঙ্গে তিনি নিজেই অনলাইনের মধ্যমে ভুল রেশন কার্ড বাতিল করে সঠিক রেশন কার্ডের আবেদন জানিয়েছেন।

    অপরদিকে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার কীভাবে বিপিএল সমমর্যাদার রেশন কার্ডের সুবিধা পান, সে নিয়ে প্রশ্ন তুলল তৃণমূল কংগ্রেস। জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি দেবাশীষ মজুমদারের অভিযোগ, সুকান্তবাবু নিজে একজন সাংসদ ও পেশায় অধ্যাপক হয়েও কেন এমন ব্যবহার করলেন৷ তাঁর স্ত্রী শিক্ষিকা,বাবা - মা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী৷ এমন সামাজিক মর্যাদা থাকার পরও বিপিএল তালিকায় নাম বা বিপিএল সমমর্যাদার এসপিএসএসের আওতায় দীর্ঘদিন যাবৎ ধরে রেশন নিচ্ছেন কেন? এমন প্রশ্ন তুলে সোচ্চার হয়েছেন তৃণমূল নেতা।

    এই বিষয়টি সাংসদ জানতেন না বলে যা অজুহাত দেওয়া হচ্ছে, সেটা বিশ্বাসযোগ্য নয় বলে দেবাশীষবাবুর মত। সাংসদ নিজে অধ্যাপক হয়েও বা তার পরিবারের সকলে চাকুরীজীবী হয়েও কী করে ওই পরিবার বিপিএল সমমর্যাদার রেশন কার্ডের সুবিধা ভোগ করেন, এ বিষয়ে প্রশাসনিক তদন্তের দাবি করেছেন তৃণমূলের নেতা৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: