corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেঘ সরিয়ে ঝকঝকে আকাশ, রায়গঞ্জে সূর্যগ্রহণ দেখল স্কুল পড়ুয়ারা

মেঘ সরিয়ে ঝকঝকে আকাশ, রায়গঞ্জে সূর্যগ্রহণ দেখল স্কুল পড়ুয়ারা
রায়গঞ্জ থেকেও দেখা গেল আংশিক সূর্যগ্রহণ৷

এদিন সকাল থেকে কখনও কখনও আকাশ মেঘলা হয়েছে৷ কিন্তু আকাশ আবার পরিষ্কার হয়ে সূর্য ওঠায় এই দৃশ্য চাক্ষুস করেন রায়গঞ্জের মানুষ।

  • Share this:

#উত্তর দিনাজপুর: রায়গঞ্জ  এবং ইসলামপুরে বলয়গ্রাস  সূর্যগ্রহণ দেখল ছাত্রছাত্রীরা। বিজ্ঞান মঞ্চের আয়োজনে কচিকাঁচারা এই মহাজাগতিক দৃশ্য দেখার সুযোগ করে দেয়।

পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের পক্ষ থেকে স্কুল পড়ুয়াদের সঙ্গে  নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই সূর্যগ্রহণ দেখার আয়োজন করা হয় রায়গঞ্জে। ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে সূর্যগ্রহণ দেখার ব্যবস্থা করে পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞানমঞ্চ।

বিজ্ঞানমঞ্চের উত্তর দিনাজপুর জেলা শাখার পক্ষ থেকে রায়গঞ্জ রেল স্টেশনের ২ নম্বর প্ল্যাটফর্মে স্কুলের ছাত্রছাত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের জন্যও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এ দিন সূর্যগ্রহণ দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। বিজ্ঞান মঞ্চের পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষ এবং পড়ুয়াদের হাতে সূর্যগ্রহণ দেখার বিশেষ সোলার ফিল্টার তুলে দেওয়া হয়।

করোনা আবহের মাঝেও সাধারণ মানুষের মধ্যে সূর্যগ্রহণ দেখার উৎসাহ ও উদ্দীপনা ছিল চোখে পড়ার মতো। শহরের পাশাপাশি গ্রামগঞ্জের ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের মধ্যে সূর্যগ্রহণ দেখার উৎসাহ এদিন দেখা গিয়েছে।  গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় বড় গামলা বা বালতিতে জল রেখে সেই জলেই সূর্যগ্রহণের দৃশ্য উপভোগ করতে দেখা গিয়েছে উৎসাহীদের৷ যদিও এই উপায় অবলম্বন করে সূর্যগ্রহণ না দেখার পরামর্শই দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিন সকাল থেকে কখনও  কখনও আকাশ মেঘলা হয়েছে৷ কিন্তু আকাশ আবার পরিষ্কার হয়ে সূর্য ওঠায় এই দৃশ্য চাক্ষুস করেন রায়গঞ্জের মানুষ। বেলা বাড়তে আকাশ মেঘলা করে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় অবশ্য কচিকাঁচাদের আনন্দের ভাটা পড়ে। উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজ্ঞান মঞ্চের সভাপতি অঞ্জন মজুমদার জানিয়েছেন, জেলার সর্বত্র বিজ্ঞান মঞ্চের তরফ থেকে স্কুল ছাত্রছাত্রীদের সূর্যগ্রহণ দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেঘলা আকাশের জন্ কোথাও কোথাও এই দৃশ্য দেখতে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তবে রায়গঞ্জে বেশ কিছুক্ষণ ঝকঝকে আকাশের জন্য এই এলাকার মানুষ গ্রহণ চাক্ষুস করেছেন।

Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 21, 2020, 4:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर