• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • Corona Death: করোনা কেড়েছে তরুণী স্ত্রীকে, শ্রাদ্ধের পরিবর্তে চা শ্রমিকদের জন্যে হাট বসালেন বেদনাহত স্বামী

Corona Death: করোনা কেড়েছে তরুণী স্ত্রীকে, শ্রাদ্ধের পরিবর্তে চা শ্রমিকদের জন্যে হাট বসালেন বেদনাহত স্বামী

আজ ছিল পাপিয়ার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান। বাড়িতে আয়োজন না করে এক চা বাগানের  শ্রমিকদের পাশে এসে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার।

আজ ছিল পাপিয়ার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান। বাড়িতে আয়োজন না করে এক চা বাগানের শ্রমিকদের পাশে এসে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার।

আজ ছিল পাপিয়ার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান। বাড়িতে আয়োজন না করে এক চা বাগানের শ্রমিকদের পাশে এসে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ৯ মে কোভিডে হারিয়েছেন স্ত্রীকে। সংক্রমিত হওয়ার পর থেকে স্ত্রীকে সুস্থ করে তোলার জন্যে সব চেষ্টাই করেছিলেন। এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতাল, চিকিৎসার কোনও ত্রুটি রাখেননি। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। কোভিডের কাছে হার মানতে হয় শিলিগুড়ির বিধাননগরের ৩৩ বছর বয়সী গৃহবধূ পাপিয়া ঘোষকে। পাপিয়া নেই, এখনও বিশ্বাসই করতে পারছেন না পরিবারের কেউই। শোকতপ্ত গোটা পরিবার।

আজ ছিল পাপিয়ার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান। বাড়িতে আয়োজন না করে এক চা বাগানের  শ্রমিকদের পাশে এসে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। শ্রাদ্ধের পরিবর্তে অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তাঁর স্বামীও। মানবিকতা যে আজও হারিয়ে যায়নি, তারই দৃষ্টান্ত তুলে ধরার চেষ্টা করেন। বিধাননগর ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সহযোগিতায় তাঁরা আজ রবিবাসরীয় হাটের আয়োজন করেন বিধাননগরের সিতুভিটা চা বাগানে। করোনা মোকাবিলায় রাজ্যজুড়েই চলছে কড়া বিধিনিষেধ। তার প্রভাব পড়েছে চা বলয়েও। ৫০ শতাংশ শ্রমিক নিয়ে চলছে পাতা তোলার কাজ। আজ সেই বাগানের শ্রমিকদের জন্যেই হাট বসান বিধাননগরের গৌতম ঘোষ।

হাটে ছিল রকমারি খাদ্য সামগ্রী। চাল, ডাল, সবজি থেকে সরষের তেল, সোয়াবিন, ডিমও! কোভিড বিধি মেনে এক এক করে চা শ্রমিকেরা যোগ দেন হাটে। লাইন করে এসে তুলে নেন প্রয়োজনীয় রেশন সামগ্রী। কড়া নিষেধাজ্ঞার জেরে শ্রমিক আবাসনেও খাদ্য সংকটের ছায়া। আর তাই এই ধরনের হাটের আয়োজনে খুশি ওঁরাও। চা শ্রমিকদের কথায়, এই সময়ে এই ধরনের হাট বসলে অনেকেই উপকৃত হবেন। এ দিনের এই কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়েই কোভিডে হারানো স্ত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানান গৌতম ঘোষ।

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published: