উত্তরবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

অনলাইনের হিড়িকের মধ্যেই উলটপুরাণ ? স্নাতকস্তর গৌড়বঙ্গের তিন জেলায় পড়ুয়াদের অফলাইনের রমরমা

অনলাইনের হিড়িকের মধ্যেই উলটপুরাণ ? স্নাতকস্তর গৌড়বঙ্গের তিন জেলায় পড়ুয়াদের অফলাইনের রমরমা

মালদহ মহিলা কলেজে আবার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ ছাত্রী উত্তরপত্র জমা দিতে আসছেন কলেজে। ছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশ মেনে উত্তরপত্র গ্রহনের আলাদা 'হেল্প ডেক্স' রাখা হয়েছে।

  • Share this:

# মালদহ: করোনা আবহে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে অনলাইনে। ইন্টারনেটের সাহায্যে প্রশ্নপত্র ডাউনলোড আর পরীক্ষা শেষে উত্তরপত্র আপলোডের নির্দেশ দিয়েছে ইউজিসি। কিন্তু, গৌড়বঙ্গের তিন জেলায় ছাত্র-ছাত্রীদের বেশিরভাগই অফলাইনে উত্তরপত্র জমা দিচ্ছেন। প্রতিদিনই পরীক্ষা শেষে পর উত্তরপত্র জমা দেওয়ার ভিড় জমছে বিভিন্ন কলেজে। উঠে আসছে নানা সমস্যা। মালদহের গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক স্তরে পরীক্ষায় বসেছে তিন জেলার ২৫ টি কলেজের ৩০ হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থী।

স্নাতকোত্তর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা আরও প্রায় দুই হাজার। বাড়িতে বসে বইপত্র দেখে উত্তরপত্র তৈরি করে জমা করতে বলা হয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের। কিন্তু, উত্তরপত্র আপলোড এর ক্ষেত্রে গৌড়বঙ্গের তিন জেলাতেই উল্টো ছবি। অনলাইনে প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করলেও পরীক্ষা শেষের পর পড়ুয়াদের ভরসা সেই অফলাইন  পদ্ধতি। উত্তরপত্র হাতে পড়ুয়াদের ভিড় মালদহ, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের বিভিন্ন কলেজে। কিন্তু, কেন এই উলটপুরাণ ? পরীক্ষার্থীরা বলছেন, উত্তরের এই তিন জেলায় মোবাইল ও ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক যথেষ্ট দুর্বল। ফলে সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে তাঁদের। পরীক্ষা শেষের পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে একসঙ্গে বহু পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র আপলোড করতে গেলে তা নাকি করা যাচ্ছে না। অগত্যা উত্তরপত্র হাতেই দে ছুট নিজেদের কলেজে। হাতে হাতে গিয়ে উত্তরপত্র জমা করছেন পরীক্ষার্থীরা। তথ্য বলছে, গত ৫ অক্টোবর স্নাতকের লিখিত পরীক্ষার প্রথম দিনে ১৩ হাজার ৫২৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে অনলাইনে উত্তরপত্র আপলোড করেছেন ৬২৮৯ জন পরীক্ষার্থী। এরপর ৬ অক্টোবর ৯২৮৭ জনের মধ্যে অনলাইনের সুবিধা নিয়েছেন ৪৮৬৪ জন। ৭ অক্টোবর ১১২৩২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৫০৮৮ জন অনলাইনে আপলোড করেছেন নিজেদের উত্তরপত্র। ৮ অক্টোবর ১২৫৯৮ জনের মধ্যে ৬০৯২ জন, ৯ অক্টোবর ৮১৮৭ জনের মধ্যে মাত্র ৩৮০০ জন। কিন্তু, কেন এভাবে অফলাইনকেই বেছে নিচ্ছেন পড়ুয়ারা ? পরীক্ষা শেষের পর উত্তরপত্র জমা দিতে যাতে সুবিধে হয় এজন্য অনেক পরীক্ষার্থী আবার কলেজ চত্বর বা আশপাশের এলাকায় পৌচ্ছে গিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছেন। মালদহের কালিয়াচক কলেজে আবার প্রথম দিনেই কলেজ ক্যাম্পাসের গাছ তলা, এমনকি ক্লাস রুমে বসেও পরীক্ষা দেওয়ার ছবি ধরা পড়েছে।

খোদ কলেজ অধ্যক্ষ বলছেন, পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ এর কথা ভেবে ক্যাম্পাসে কিছু সুবিধে দিতে হয়েছে। মালদহ মহিলা কলেজে আবার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ ছাত্রী উত্তরপত্র জমা দিতে আসছেন কলেজে। ছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশ মেনে উত্তরপত্র গ্রহনের আলাদা 'হেল্প ডেক্স' রাখা হয়েছে। গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, এখনও অনলাইনে গৌড়বঙ্গের তিন জেলার পরীক্ষার্থীরা অনেকেই তেমন সড়গড় নয়। শহরাঞ্চলে অনলাইন পদ্ধতি ব্যবহারের প্রবনতা তুলনামূলক বেশি হলেও, মফঃস্বল বা গ্রামাঞ্চলে এই প্রবনতা কম। এজন্য কলেজ গুলিতে ভিড় বাড়ছে।

Sebak DebSarma

Published by: Debalina Datta
First published: October 12, 2020, 10:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर