টাকা নিলে দিতে হবে হিসেব, জিটিএ-র অডিটে পুরনো অবস্থানে রাজ্য

File Photo

জিটিএ-র অডিট নিয়ে পুরনো অবস্থানেই বহাল রাজ্য সরকার ৷ কালিম্পঙের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীর স্পষ্ট বার্তা, টাকা নিলে হিসেব দিতে হবে।

  • Share this:

    #কালিম্পঙ: জিটিএ-র অডিট নিয়ে পুরনো অবস্থানেই বহাল রাজ্য সরকার ৷ কালিম্পঙের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীর স্পষ্ট বার্তা, টাকা নিলে হিসেব দিতে হবে। স্বচ্ছতা বজায় রেখে কাজ করুক জিটিএ-র নতুন কমিটি। একইসঙ্গে, নাম না করে বিমল গুরুংকেও বিঁধেছেন মমতা। বনধ-হিংসা ভুলে একজোট হয়ে পাহাড়ের উন্নয়নে সামিল হওয়ার ডাক দিয়েছেন তিনি।

    আরও পড়ুন:

    পাহাড়ে বনধ করবেন না, টুরিজমে গুরুত্ব বাড়ান, কালিম্পঙে বললেন মুখ্যমন্ত্রী

    জিটিএকে দেওয়া ৩৮০০ কোটি টাকার হিসেব চাইতেই রেগে আগুন বিমল গুরুং। আর তাতেই আগুন জ্বলে পাহাড়ে। তবে, পাহাড়ের পরিস্থিতি এখন বদলেছে। জিটিএ-র চেয়ারম্যানের চেয়ারে এখন বিনয় তামাং। কিন্তু, মন বদলায়নি রাজ্য। টাকা নিলে খরচের হিসেব যে দিতেই হবে তা ফের স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। একসময় পাহাড়ে পৃথক জনজাতির বোর্ড তৈরির জন্য ভাগাভাগির রাজনীতির অভিযোগ করেছিলেন বিমল গুরুং। কিন্তু, মঙ্গলবার সেখানেই বেনজির ঐক্যের ছবি। কালিম্পঙে ১৫টি বোর্ডকে নিয়ে সভায় উপস্থিত জিটিএ-র প্রতিনিধিরা। উপস্থিত জিএনএলএফও। একজোট হয়ে পাহাড়ের উন্নয়নের বার্তাই দিলেন মমতা।

    কালিম্পঙের সভায় এক ঢিলে দুই পাখি মারলেন মমতা। জিটিএ-র খরচের হিসেব নিয়ে বিমল গুরুঙের অবস্থান যে ভুল ছিল তা বুঝিয়ে দিলেন। আবার সতর্ক করে দিলেন বিনয় তামাং, অনীত থাপাকেও।

    প্রসঙ্গত, আজ পাহাড়ে প্রশাসনিক বৈঠক ৷ কাজের খতিয়ান নেবেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

    First published: