উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আনলকেও চালু হয়নি ট্রেন, মালদহে গৌড় এক্সপ্রেস চালুর দাবি জোরালো হচ্ছে

আনলকেও চালু হয়নি ট্রেন, মালদহে গৌড় এক্সপ্রেস চালুর দাবি জোরালো হচ্ছে

মালদহ থেকে সরাসরি কলকাতা পৌঁছনোর অন্যতম ট্রেন গৌড় এক্সপ্রেসকে পুনরায় চালু করার দাবি উঠল

  • Share this:

#মালদহ: মালদহ থেকে সরাসরি কলকাতা পৌঁছনোর অন্যতম ট্রেন গৌড় এক্সপ্রেসকে পুনরায় চালু করার দাবি উঠল। আনলকে একাধিক দূরপাল্লার স্পেশাল ট্রেন চালু হলেও এখনও গৌড় এক্সপ্রেস চালু হয়নি। মালদহ থেকে কলকাতায় পৌঁছতে হলে প্রতিদিনই সমস্যায় পড়ছেন ট্রেন  যাত্রীরা। অনেককে জরুরি প্রয়োজনে এক দিন আগে অন্যান্য ট্রেনে কলকাতায় যেতে হচ্ছে। এ'নিয়ে বাড়ছে ক্ষোভ। অবিলম্বে গৌড় এক্সপ্রেস চালু করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে মালদহ মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্স।

মালদহ থেকে রেলপথে কলকাতায় পৌঁছনোর জন্য জেলাবাসীর প্রধান ভরসা গৌড় এক্সপ্রেস। অতি গুরুত্বপূর্ণ ট্রেন আট মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ। রেল সূত্রে খবর, সারা বছর প্রতিদিন গড়ে প্রায় হাজার খানেক যাত্রী মালদহ থেকে গৌড় এক্সপ্রেস ব্যবহার করেন। রাতে মালদহ থেকে ছেড়ে সকালে কলকাতায় পৌঁছনো, আবার দিনভর প্রয়োজনীয় কাজকর্ম সেরে রাতে কলকাতা থেকে রওনা হয়ে মালদহে ফেরার সুযোগ মেলে এই ট্রেনে। ব্যবসা হোক কী চিকিৎসা, পড়াশোনা থেকে কর্মসংস্থান... নানা প্রয়োজনে কলকাতায় গিয়ে সারাদিন কাজ করে ফের ট্রেনে মালদহে ফিরতে গৌড় এক্সপ্রেস প্রধান ভরসা জেলাবাসীর। কিন্তু, আনলকে স্পেশাল ট্রেন হিসেবে একাধিক ট্রেন পুরনো টাইমটেবিল মেনে চালু হলেও গৌড় এক্সপ্রেস চালু হওয়ার কোনও উদ্যোগ নেই।  ফলে অসম অথবা উত্তরবঙ্গ থেকে আসা দূরপাল্লার ট্রেনগুলিই আপাতত ভরসা মালদহবাসীর।

যাত্রীদের অভিযোগ, স্পেশাল ট্রেন গুলিতে বাড়তি ভাড়া মেটাতে হচ্ছে, অযথা সময়ও অপচয় হচ্ছে। মালদহ মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুন্ডু বলেন, '' গৌড় এক্সপ্রেস পুনরায় চালুর দাবি জানিয়ে রেলবোর্ড থেকে স্থানীয় সাংসদ এবং ডিআরএম-কে চিঠি দিয়েছে সংগঠন। কলকাতায় লোকাল ট্রেন চালু হচ্ছে, অথচ মালদহের গৌড় এক্সপ্রেস চালু করা হবে না কেন ? অবিলম্বে এই ট্রেন চালু করা না হলে প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে ব্যবসায়ীরা।'' মালদহ টাউন স্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার দিলীপ চৌহান জানান, '' গৌড় এক্সপ্রেস নিয়ে চাহিদা আছে। রেলের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চাহিদার কথা জানানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নেবে কর্তৃপক্ষ।''

SEBAK DEB SARMA

Published by: Rukmini Mazumder
First published: November 30, 2020, 8:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर