মালদহে বৃদ্ধের শ্মশানযাত্রায় ডিজে বাজিয়ে চলল উদ্দাম নাচ, পুড়ল বাজি

মালদহে বৃদ্ধের শ্মশানযাত্রায় ডিজে বাজিয়ে চলল উদ্দাম নাচ, পুড়ল বাজি
শ্মশানযাত্রায় উদ্দাম নাচ

নতুন বছরের প্রথম দিনের সকালে উল্লাসে মাতলেন বহু মানুষ। উপলক্ষ্য ছিল পাড়ার এক প্রবীণ ব্যক্তির মৃত্যু।

  • Share this:

সেবক দেবশর্মা

#মালদহ: ১০০ বছর পার করে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বৃদ্ধ৷ শতায়ু বৃদ্ধের মৃত্যুতে অভিনব অন্তিম যাত্রা দেখল মালদহ। শ্মশান যাত্রায় বাজলো ডিজে। উড়ল আবির। বাজি,পটকা ফাটিয়ে নাচলেন পাড়াশুদ্ধ সবাই৷ এমনকী পরিবারের সদস্যরাও। এমনই শ্মশান যাত্রার ছবি ধরা পড়ল মালদহের মানিকচকের মথুরাপুরে।

বৃদ্ধের শেষযাত্রা বৃদ্ধের শেষযাত্রা

নতুন বছরের প্রথম দিনের সকালে উল্লাসে মাতলেন বহু মানুষ। উপলক্ষ্য ছিল পাড়ার এক প্রবীণ ব্যক্তির মৃত্যু। পরিবারের দাবি, মৃত বৃদ্ধের শেষ ইচ্ছে মেনেই আনন্দ উল্লাস হয়েছে শেষযাত্রায়৷ ডিজে বাজিয়ে কোমর দুলালেন সকলে। মালদহের মথুরাপুরের ধনরাজ গ্রামের প্রবীণতম ব্যক্তি ছিলেন৷ ১০৫ বছরের রফি মহালদার। গ্রামের ৬৯ নম্বর বুথের ভোটার তালিকা অনুযায়ী, তিনিই প্রবীণতম ভোটার। আজ অর্থাত্‍ বুধবার সকালে বার্ধক্যজনিত রোগে মৃত্যু হয় তাঁর। আত্মীয়রা জানিয়েছেন, শেষকৃত্যে শোকের পরিবেশ তৈরি হোক তা চাননি শতায়ু বৃদ্ধ। তাঁর জীবনে নতুন করে আর কিছু পাওয়ার ছিল না। তাই ছয় ছেলে-মেয়েকে ডেকে জানিয়েছিলেন নিজের শেষ ইচ্ছের কথা।

স্ত্রী বিনীতা মহালদার মারা গিয়েছেন দশ বছর আগে। ছেলেমেয়ে নাতি নাতনি মিলিয়ে পরিবারের সদস্য পঞ্চাশেরও বেশি। এদিন সকালে মৃত্যুর খবর ছড়াতেই আনন্দের প্রস্তুতিতে কোনও খামতি রাখেননি পরিবারের সদস্যরা। ডেকে আনা হয় ডিজে। মজুদ করা হয় আবির,বাজি, পটকা। শেষ যাত্রায় সামিল হন পাড়াশুদ্ধ লোকজন। তবে এমন শেষ যাত্রা দেখে হতবাকও হয়েছেন অনেকেই।

First published: 07:42:42 PM Jan 01, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर