corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিল্লির হিংসায় আহত বাংলার শ্রমিক, দুষ্কৃতী হামলায় মাথায় আঘাত

দিল্লির হিংসায় আহত বাংলার শ্রমিক, দুষ্কৃতী হামলায় মাথায় আঘাত

দরিয়াগঞ্জে দুষ্কৃতীদের হামলায় মাথায় গুরুতর আঘাত উত্তর দিনাজপুরের আজিজ শেখের।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: দিল্লির হিংসায় আহত বাংলার শ্রমিক। দরিয়াগঞ্জে দুষ্কৃতীদের হামলায় মাথায় গুরুতর আঘাত উত্তর দিনাজপুরের আজিজ শেখের। তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করেন জওয়ানরা। শনিবার রাতে রায়গঞ্জ ফেরেন আজিজ। দিল্লিতে কাজ করতে গিয়ে আক্রান্ত বাংলার শ্রমিক। উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারের বাসিন্দা আজিজ শেখ। কর্মসূত্রে প্রায় ৭ বছর দিল্লির বারোদুয়ারিতে থাকেন। খাস রাজধানীতে কখনও ছবি দেখবেন স্বপ্নেও ভাবেননি। হঠাৎই চোখের সামনে ভয়াবহ হিংসা। মাত্র ১০ দিন আগে ইটাহারের বাসিন্দা আজিজ শেখ শ্রমিকের কাজ করতে দিল্লি গিয়েছিলেন। দীর্ঘ ৭ বছর যাবদ সে দিল্লীতেই শ্রমিকের কাজ করেন। দিল্লীর বারোদূয়ারী গ্রামে থাকেন। ওই দিন কাজ করতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে দরিয়াগঞ্জে যাচ্ছিলেন তিনি। সেখানকার জামা মসজিদ পেরোতেই পেছন থেকে ভারী কিছু বস্তু দিয়ে হঠাৎ তার ওপর আক্রমণ করা হয়। এরপর আর কিছুই মনে নেই আজিজ। ঘটনার ৪ ঘন্টা পর যখন তার চোখ খোলে তখন নিজেকে আর্মি হাসপাতালে বিছানায় পান তিন। তার দাবি দিল্লিতে হিংসা চলাকালীন এই ঘটনা হয়েছে। হাসপাতালে চোখ খোলার পর সেখানকার এক ব্যক্তির কাছ থেকে মোবাইল ফোন নিয়ে ইটাহারের বাড়িতে ফোন করেন। পরিবারের লোকেরা এই খবর পেয়ে তড়িঘড়ি দিল্লীতে চলে আসেন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা করার পর তাকে নিয়ে আসা হয়। শনিবার রাতে তাকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অবস্থা সংকটজনক থাকায় তাকে কলকাতায় স্থানান্তর করা হয়েছে। আজিজ শেখের মাথায় গুরুতর আঘাত। কলকাতায় আনা হয়েছে আজিজকে। এ যাত্রা প্রাণে বেঁচেছেন। তাই পেটে ক্ষিদে থাকলেও আর দিল্লি ফিরতে চান না আজিজ।

আজ সকালে আহত আজিজকে দেখতে হাসপাতালে আসেন উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিষদ সদস্যের বিউটি বেগমের স্বামী আসলাম আলী।দিন আনা দিনখাওয়া পরিবারে চিকিৎসা ব্যায়ভার বহন করতে সমস্যায় পড়বেন।তাই চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছেন জেলা পরিষদ সদস্য।তৃনমূল কংগ্রেস নেতা আসলাম আলী জানিয়েছেন,আহত আজিজ শেখের আতঙ্ক এখনও কাটে নি।উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কলকাতায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্য করবেন।

Uttam Paul
Published by: Ananya Chakraborty
First published: March 1, 2020, 5:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर