মালদায় ত্রিশঙ্কু জটে জেরবার কংগ্রেস, তৃণমূল না বিজেপি, কার সঙ্গে সমঝোতা?

Representational Image

তৃণমূল না বিজেপি, দুই শত্রুর মধ‍্যে কার সঙ্গে সমঝোতা? না কি বিরোধী আসনে বসাই ভাল? ত্রিশঙ্কু জট কাটাতে কী করবে বুঝে উঠতে পারছে না মালদা কংগ্রেস নেতৃত্ব।

  • Share this:

    #মালদহ: তৃণমূল না বিজেপি, দুই শত্রুর মধ‍্যে কার সঙ্গে সমঝোতা? না কি বিরোধী আসনে বসাই ভাল? ত্রিশঙ্কু জট কাটাতে কী করবে বুঝে উঠতে পারছে না মালদা কংগ্রেস নেতৃত্ব।

    নিজেদের গড় মালদাতেও এবার মুখ থুবড়ে পড়েছে কংগ্রেস।

    ১৪৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ‍্যে কংগ্রেস জিতেছে মাত্র ৪টিতে। ৬২টি গ্রাম পঞ্চায়েত ত্রিশঙ্কু। এর মধ‍্যে ৪০টিরও বেশি পঞ্চায়েতে একক বৃহত্তম দল কংগ্রেস।

    আরও পড়ুন: আজ ফের ভোটগ্রহণ জলপাইগুড়ির ফুলবাড়ির ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতে

    মালদার ১৫টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ‍্যে কংগ্রেস এবার পেয়েছে মাত্র একটি। তিনটি পঞ্চায়েত সমিতি ত্রিশঙ্কু। তিনটিতেও কংগ্রেসই বড় দল।

    আরও পড়ুন: পুরুলিয়ায় ফের ভোট গণনা কেন? প্রশ্ন বিজেপির, বয়কটের ডাক তাদের

    কিন্তু হলে কী হবে, বাকি যে দুই দল লড়াইয়ে রয়েছে তারা তো তৃণমূল এবং বিজেপি। দুই দলই কংগ্রেসের রাজনৈতিক শত্রু।

    তৃণমূল এখানে তো, বিজেপি দিল্লিতে। অর্থা‍ৎ, একদিকে রাজ‍্য রাজনীতির বাধ‍্যবাধকতা আবার অন্যদিকে ২০১৯ সালের আগে কংগ্রেস চাইছে বিজেপি-বিরোধিতাকে ঝড়ে পরিণত করতে

    আবার, তৃণমূল-বিজেপি, কোনও দলের সঙ্গেই সমঝোতা না করে, বিরোধী আসনে বসলে আরেক বিপদের আশঙ্কা। কারণ, ক্ষমতায় না থাকলে কংগ্রেসের জনপ্রতিনিধিদের ধরে রাখা কঠিন। এই পরিস্থিতিতে, দলের রাজ‍্য ও দিল্লি নেতৃত্বের দিকে তাকিয়ে গণি খানের জেলার কংগ্রেস নেতারা।

    First published: