বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বার বার গণধর্ষণ, অত্যাচারে অচেতন কিশোরীকে গলা কেটে পোড়াল দুষ্কৃতিরা

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বার বার গণধর্ষণ, অত্যাচারে অচেতন কিশোরীকে গলা কেটে পোড়াল দুষ্কৃতিরা

প্রথমে গণধর্ষণ। জ্ঞান হারানোর পর ফের ধর্ষণ। এরপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে খুন। পরে পেট্রোল ঢেলে পোড়ানো হয় দেহ।

  • Share this:

#বালুরঘাট: তেলেঙ্গনায় গণধর্ষণ-খুনে কিশোরীকে হঠাৎ করেই রাস্তায় পায় অভিযুক্তরা। কিন্তু কয়েকমাস ধরেই টার্গেট ছিল কুমারগঞ্জের কিশোরী । বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বারবার কিশোরীর বাড়িতে ঢুকে মারধর করত ধৃত মূল অভিযুক্ত মহাবুর মিঞা। সম্প্রতি কিশোরীর বিয়ে ঠিক হওয়ায় অত্যাচার বাড়তে থাকে। দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জের নারকীয় ঘটনায় নাবালিকার মায়ের অভিযোগ, পরিকল্পনা করেই মেয়েকে গণধর্ষণ, তারপর খুন করা হয়েছে।

প্রথমে গণধর্ষণ। জ্ঞান হারানোর পর ফের ধর্ষণ। এরপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে খুন। পরে পেট্রোল ঢেলে পোড়ানো হয় দেহ। নৃশংস ঘটনায় শিউরে উঠছে দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ। কিশোরীর মায়ের দাবি,ধৃতরা পরিচিত। পরিকল্পনা করেই গণধর্ষণ। তারপর খুন করা হয়েছে মেয়েকে। ধৃত মহাবুর মিয়াঁর বিরুদ্ধে মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ এনেছেন কিশোরীর মা।

ধৃত মহাবুর গোয়ায় কাজ করে। কিশোরীর মায়ের অভিযোগ, বাড়িতে এলেই বিয়ের জন্য চাপ দিত মহাবুর। বিয়েতে রাজি না হওয়াতেই রাগ ৷ কিশোরীর মায়ের দাবি, সম্প্রতি কিশোরীর অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয় ৷ তারপরেই মহাবুর হুমকি দিতে থাকে ৷ পুলিশে অভিযোগ জানানোর চেষ্টা করে কিশোরীর পরিবার ৷ মহাবুরের পরিবার ক্ষমা চেয়ে নেয় ৷

নির্যাতিতার মায়ের আরও দাবি, শনিবারও ধর্ষণ ও খুনের উদ্দেশে তাঁদের বাড়িতে হানা দিয়েছিল অভিযুক্তরা। যদিও সেই ছক ভেস্তে যায়। তারপরেই রবিবার দুপুরে কিশোরীকে রাস্তা একা পেয়ে তুলে নিয়ে যায় মহাবুর। অন্য দু’জনকে সেদিনই ডেকে নিয়েছিল সে। এদিকে এই নিয়ে শুরু রাজনৈতিক চাপানউতোর।

First published: 09:26:36 PM Jan 07, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर