• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • কাজ হারিয়ে দুবাই থেকে ২১৪ জন ফিরলেন! এই প্রথম বাগডোগরায় এল এয়ার আরবিয়ার বিমান! 

কাজ হারিয়ে দুবাই থেকে ২১৪ জন ফিরলেন! এই প্রথম বাগডোগরায় এল এয়ার আরবিয়ার বিমান! 

আজ ফিরলেও কেউই বাড়ি যেতে পারবেন না। সকলকেই থাকতে হবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে।

আজ ফিরলেও কেউই বাড়ি যেতে পারবেন না। সকলকেই থাকতে হবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে।

আজ ফিরলেও কেউই বাড়ি যেতে পারবেন না। সকলকেই থাকতে হবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: কাজের জন্যেই ওরা পাড়ি দিয়েছিলেন বিদেশে। দুবাইতে। কেউ বছর ছয়েক আগে। কেউ আবার তিন বছর আগে। আবার কেউ গিয়েছিলেন গত বছরে। আর আজ তারা ফিরলেন কাজ হারিয়ে! মারণ করোনা কেড়ে নিয়েছে ওদের কাজ! টানা ৩ থেকে ৪ মাস পাননি বেতন! অসহায় অবস্থায় আটকে ছিলেন দুবাইতে। সিকিম আর আমাদের রাজ্য মিলিয়ে সংখ্যাটা ২১৪! এর মধ্যে এক শিশুও রয়েছে। বেশীরভাগই দুবাইতে রেঁস্তোরায় কাজ করতেন। কেউ ছিলেন শেফ। আবার কেউ অন্য কোনো সংস্থায় কাজ করতেন। বিশ্বজুড়ে মহামারী করোনার থাবায় বিধ্বস্ত দুবাইও! বড়সড় প্রভাব পড়ে ব্যবসায়। আর তাই চলে একের পর এক ছাঁটাই। তাতেই কাজ হারালেন দার্জিলিং, কার্শিয়ং, মিরিক, কালিম্পং, কলকাতা এবং সিকিমের ২১৩ জন!

আজ দুপুর ১টা বেজে ১০ মিনিটে বাগডোগরা বিমানবন্দরে নামে এয়ার আরবিয়ার G9657  বিশেষ বিমান। বাগডোগরার ইতিহাসে এই প্রথম! শারজা থেকে এল বিমান! সৌজন্যে করোনা! নেপালে উড়ান চললেও দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে বন্ধ। ভুটানের সঙ্গে বিমান ওঠা নামা করলেও লকডাউনের জন্যে বন্ধ রয়েছে পরিষেবা। বাগডোগরা বিমানবন্দরের ডিরেক্টর সুব্রমণি পি জানান, অবশ্যই ঐতিহাসিক দিন আজ। তবে কোভিড প্রোটোকল মেনেই যাত্রীদের নামানো হয়েছে। এদিকে আজ ফিরলেও কেউই বাড়ি যেতে পারবেন না। সকলকেই থাকতে হবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে। শিলিগুড়ির বিভিন্ন হোটেলে পেইড কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। উপসর্গ এলে সোয়াবের নমুন সংগ্র করা হবে। আর যাদের পেইড কোয়ারেন্টাইন থাকার সামর্থ্য নেই তাদের পাশে থাকবে জিটিএ। জানান, চেয়ারম্যান অনীত থাপা। তবে কাজ হারিয়ে দিশেহারা ইডেন ইয়োলমো, বিশাল রাই সিংরা জানান, এখন কি করবো তা মাথায় আসছে না। কিভাবে সংসার চলবে, ভেবে উঠতে পারছি না। গতকাল রাতে বিমানে চেপেছেন। দীর্ঘ পথ পার করে আজ বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে বেরোলেন বিকেল সাড়ে চারটে নাহাদ। বড্ড ক্লান্তির ছাপ ওদের চোখে মুখে। বিমানবন্দরে অনেকেরই পরিবারের লোকেরা এসেছিলেন। অভিভাবকদের চোখেও উৎকণ্ঠার ছাপ!

PARTHA PRATIM SARKAR

Published by:Piya Banerjee
First published: