অসময়ে তুষারপাত, বরফ ঢাকা পাহাড় দেখতে বুকিংয়ের তোড়জোড় শুরু পর্যটকদের

অসময়ে তুষারপাত, বরফ ঢাকা পাহাড় দেখতে বুকিংয়ের তোড়জোড় শুরু পর্যটকদের

হোলিতেও ডেস্টিনেশন পাহাড়! আশার আলো পর্যটন শিল্পে

  • Share this:

#কলকাতা: ফের ভিড় বাড়ছে পাহাড়ে। হ্যাঁ, পর্যটনের এই অসময়েও। এক তুষারপাত বদলে দিয়েছে সব কিছু। মূহূর্তেই ভ্রমণপিপাসুদের শিডিউলে এনে দিয়েছে পরিবর্তন! একে সামনে হোলি। তার একটা ভিড় তো ছিলই। এবারে সান্দাকফু, টাইগার হিল, ধোত্রেতে তুষারপাত হওয়ায় বেড়াতে যাওয়ার রুটিনেও চেঞ্জ। সমতলে হালকা গরম। পাহাড়ে এই সময়েও ঠাণ্ডা যথেষ্টই। হাড় হিম না হলেও মনোরম, উপভোগ্য আবহাওয়া।

তুষারপাতের পর ঘন ঘন ফোন আসছে পর্যটন ব্যবসায়ীদের কাছে। মার্চের গোড়াতে এমন বুকিংয়ের হিড়িক সাম্প্রতিককালে আসেনি। চওড়া হাসি পর্যটন শিল্পের সঙ্গে জড়িতদের। ফের বরফ পড়বে, এই আশাতেই কলকাতা তো বটেই, দিল্লি, মুম্বাই, রাজস্থান, চণ্ডীগড় থেকেও বুকিংয়ের তোরজোড় শুরু হয়ে গিয়েছে পর্যটকদের। পাহাড়ের আবহাওয়া এখন রোদ ঝলমলে। কুয়াশার চাদর সরিয়ে শ্বেতশুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘার হাতছানি! মিস করা আর যায় কি! আর বরফ পড়লে তো কথাই নেই। সান্দাকফু, টাইগার হিলে বরফ পড়ার পর তা টের পাওয়া গিয়েছে। সমতলের বহু পর্যটক খবর পেতেই ছুটে গেছেন পাহাড়ে। এবারে ভিন রাজ্যের পর্যটকেরা কড়া নাড়তে শুরু করেছে।

পর্যটন ব্যবসায়ী সম্রাট সান্যালের কথায়, বরফ এবারে বাড়তি আকর্ষণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তার জেরেই বুকিং বাড়ছে। সিকিমে তুষারপাতের জেরে বহু রাস্তা বন্ধ। ছাঙ্গু লেক, বাবা মন্দির যাওয়ার রাস্তা তিন দিন ধরে বন্ধ রয়েছে। পর্যটকদের পারমিটের অনুমতি নেই। তাতে কি এসে যায়! ভ্রমনপিপাসুদের কি আর আটকানো যায়! লাগেজ রেডি। ট্রেন, ফ্লাইটের টিকিট কাটাও শেষ। অধিকাংশ বাংলা এবং ইংরেজী মাধ্যম স্কুলের ফাইনাল পরীক্ষাও প্রায় শেষ। তাহলে আর ঘরে বসে থাকা কেন। দে ছুট। পাহাড় যে ডাকছে! পর্যটকদের অপেক্ষায় তার অপরূপ সৌন্দর্যের ডালি নিয়ে সে যে ডাকছে। পর্যটকদের কাছে মার্চেও এবার ডেস্টিনেশন শৈলশহর। আশার আলো দেখছেন পর্যটন ব্যবসায়ীরা। টয় ট্রেনের টিকিটের চাহিদাও বেড়েছে। দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়েও জয় রাইডের বিশেষ প্যাকেজ নিয়ে তৈরী। অতিথিদের বরণে প্রস্তুত শৈলরাণীও।

Partha Sarkar

First published: February 28, 2020, 2:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर