corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাজাজ পরিবারের এক সদস্য গান্ধিদেরও এক সময় একহাত নিয়েছিলেন

বাজাজ পরিবারের এক সদস্য গান্ধিদেরও এক সময় একহাত নিয়েছিলেন
রামকৃষ্ণ বাজাজ

নিজেকে বলতেন, 'আমি মহাত্মা গান্ধির কুলি৷' ২১ মাসের দীর্ঘ জরুরি অবস্থা চলাকালীন ক্রমাগত হেনস্থার মুখে পড়েন রামকৃষ্ণ বাজাজ৷

  • Share this:

রশিদ কিদওয়াই

সরকারকে খোঁচা দিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক তৈরি করা বাজাজ পরিবারের পুরনো ঐতিহ্য৷ এই পরিবার গান্ধি পরিবারকেও ছাড়েনি৷ অনেক বছর আগের কথা৷ ১৯৭৬ সালের মে মাস৷ রাহুল বাজাজের কাকা ও স্বাধীনতা সংগ্রামী রামকৃষ্ণ বাজাজ সরাসরি সঞ্জয় গান্ধির রাজনৈতিক ভবিষ্যত্‍ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ রামকৃষ্ণ বাজাজ হলেন শিল্পপতি যমুনালাল বাজাজের ছেলে৷ মহাত্মা গান্ধির 'ভারত ছাড়ো' আন্দোলনে যোগ দিয়ে ১৯৪২ থেকে ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত হাজতে ছিলেন ব্রিটিশ আমলে৷

নিজেকে বলতেন, 'আমি মহাত্মা গান্ধির কুলি৷' ২১ মাসের দীর্ঘ জরুরি অবস্থা চলাকালীন ক্রমাগত হেনস্থার মুখে পড়েন রামকৃষ্ণ বাজাজ৷ রামকৃষ্ণের বাড়িতে একের পর এক আয়কর বিভাগের হানা চলে৷ আরেক গান্ধি অনুগামী বিনোবা ভাবে তখন গো-হত্যার বিরুদ্ধে অনশন আন্দোলন করছেন৷ রামকৃষ্ণকে দিয়ে জোর করে বিনোবার ভাবের আন্দোলন প্রত্যাহার করানো হয়৷

রামকৃষ্ণও হাল ছাড়ার পাত্র নন৷ তিনি প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির সাহায্য চান৷ ইন্দিরা রামকৃষ্ণের ছোটবেলার বন্ধুও ছিলেন৷ তাতেও লাভ হয়নি৷ হেনস্থা চলতেই থাকে৷ ১৯৭৫ সালের ৩০ অগাস্ট, রামকৃষ্ণ তখন বিশ্ব যুবক কেন্দ্রের ডিরেক্টর৷ দিল্লি প্রশানের কাছ থেকে একটি ফরমাশ পান৷ বিশ্ব যুবক কেন্দ্র নিজেদের অধীনে চায় দিল্লি প্রশাসন৷ রামকৃষ্ণ কংগ্রেসে তাঁর বন্ধুদের কাছে খোঁজ খবর নেন, কেন সরকার বিশ্ব যুবক কেন্দ্রে নিয়ন্ত্রণ চাইছে৷ জানতে পারেন, সঞ্জয় গান্ধি ওই বিল্ডিংটির দখল চান৷ উনি যুব-কংগ্রেসের জন্য হস্টেল তৈরি করবেন৷

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্রহ্মানন্দ রেড্ডিকে সব জানান তিনি৷ কিন্তু অরণ্যে রোদন হয় বিষয়টা৷ কেন্দ্রের থেকে নির্দেশ আসে, বিশ্ব যুবক কেন্দ্রের অছি পর্ষজ সঞ্জয়কে দেওয়া হোক৷ এরপর গান্ধিবাদী রামকৃষ্ণ ইন্দিরার দ্বারস্থ হন৷ বিমানে ইন্দিরাকে রামকৃষ্ণ বলেন, 'আপকি মুঝসে কোই নারাজগি হ্যায় ক্যায়া?' ইন্দিরা উত্তরে বলেন, 'হাঁ, সিকায়াতেঁ তো হোতি হি র‍েহতি হ্যায়৷'

আসলে বিশ্ব যুবক কেন্দ্রের বিষয়ে রামকৃষ্ণ ইন্দিরার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইছিলেন৷ বন্ধুত্বপূর্ণ ভাবে৷ তাই যাঁরা রাহুল বাজাজের কেন্দ্রকে সমালোচনা নিয়ে আলোচনায় ব্যস্ত, তাঁরা বাজাজ পরিবারের ঐতিহ্য জানেন না বোধ হয়৷ এই পরিবার গান্ধিদেরও ছাড়েনি৷

লেখকের মত ব্যক্তিগত

First published: December 2, 2019, 3:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर