কম দামে পেঁয়াজ পেতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় খোঁজ, ভাইরাল পোস্ট

কম দামে পেঁয়াজ পেতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় খোঁজ, ভাইরাল পোস্ট

এই অগ্নিমূল্যের বাজারে বেশ কিছুটা কম দামে পেঁয়াজ পেতেই সুফল বাংলার স্টলের খোঁজ করছেন বর্ধমানের বাসিন্দাদের অনেকেই।

  • Share this:

SARADINDU GHOSH

#বর্ধমান: বর্ধমান শহরে সুফল বাংলার স্টল কোথায় বলতে পারেন? জানা থাকলে একটু বলবেন প্লিজ। এই প্রশ্ন, এই আবেদন এখন ঘুরছে সোস্যাল মিডিয়ায়। বন্ধু বান্ধব আত্মীয় পরিজনদের কাছে সদুত্তর না পেয়ে নেট দুনিয়ায় প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে উত্তরের অপেক্ষায় অনেকেই। কারণ একটাই, পেঁয়াজের দাম। এই অগ্নিমূল্যের বাজারে বেশ কিছুটা কম দামে পেঁয়াজ পেতেই সুফল বাংলার স্টলের খোঁজ করছেন বর্ধমানের বাসিন্দাদের অনেকেই।

পেঁয়াজ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে বেশ কয়েকদিন আগেই। এখন বর্ধমানের খুচরো বাজারে তার দাম ১২০ টাকা।ফলে অনেকেই অভ্যাসের বাইরে বেরিয়ে অনেক কম পরিমান পেঁয়াজ কিনে দিন কাটাচ্ছেন। খোঁজ চলছে বিনা পেঁয়াজে রকমারি আমিষ রান্নার। খুচরো বাজারগুলিতে পেঁয়াজ যখন দামের ঝাঁঝে ধরা ছোঁয়ার বাইরে তখন কলকাতা সহ রাজ্যের সুফল বাংলার স্টলগুলিতে কেজি প্রতি ৫৯ টাকায় পেঁয়াজ মিলছে। অনেক জায়গায় রেশন দোকান থেকেও ওই দামে পেঁয়াজ দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। পাশের মহকুমা শহর কাটোয়ায় বাসিন্দারা সুফল বাংলার স্টল থেকে পেঁয়াজ কিনছেন। পাশের জেলার আসানসোল বা বোলপুরেও সুফল বাংলার স্টল থেকে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে। বর্ধমানে রেশনে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়নি। তাই দামের সঙ্গে পাল্লা দিতে না পেরে অনেকেই সুফল বাংলার স্টল খুঁজছেন সোস্যাল মিডিয়ায়।

কৃষি বিপণন দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়ায় সুফল বাংলার স্টল থাকলেও জেলার সদর শহর বর্ধমানে সেই স্টল নেই। বর্ধমান সহ সুফল বাংলার স্টল না থাকা শহরগুলিতে ভ্রাম্যমান স্টলের মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও রাজস্থান থেকেও পেঁয়াজ এনে ঘাটতি মেটানোর চেষ্টা চলছে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতী জানান, পেঁয়াজ বেআইনিভাবে মজুত করে কৃত্রিম অভাব তৈরির চেষ্টা হলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। অযথা বেশি দাম নেওয়া হলেও দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিশেষ টাস্ক ফোর্স প্রতিদিন বাজারগুলিতে নজর রাখছে।

First published: December 11, 2019, 2:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर