• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • TRUCK FULL OF WOODS COLLIDED WITH THE TREE RESULT WAS AWSOME SMJ

কয়েকশো গাছের গুঁড়ি বোঝাই ট্রাকের ধাক্কাও সয়ে নিল এই গাছ! রহস্য কী, জানালেন এক IPS

সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কয়েকশো গাছের গুড়ি বোঝাই একটি ট্রাক রাস্তার ধারে থাকা একটি গাছে সজোরে ধাক্কা মেরেছে।

সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কয়েকশো গাছের গুড়ি বোঝাই একটি ট্রাক রাস্তার ধারে থাকা একটি গাছে সজোরে ধাক্কা মেরেছে।

  • Share this:
    #নয়াদিল্লি: সোশ্যাল মিডিয়ায় হামেশাই মজাদার ফটো, ভিডিও শেয়ার হয়। কিন্তু অনেক সময়ই ভাইরাল হওয়া সেইসব ছবি বা ভিডিও-র পেছনে কিছু মেসেজ থাকে। অনেক সময় আমরা হয়তো সেই মেসেজ ঠিকঠাক বুঝতে পারি না। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে এমন কিছু মানুষ থাকেন যাঁরা অন্যদের সেই ছবিতে লুকিয়ে থাকা মেসেজ বুঝতে সাহায্য করেন। আইপিএস অফিসার ভিসম সিং এমনই একজন মানুষ। তিনি একটি দুর্ঘটনার ছবি থেকেও সমাজের জন্য মেসেজ তুলে এনেছেন।

    সেই আইপিএস অফিসার একটি ছবি শেয়ার করেছেন। সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কয়েকশো গাছের গুড়ি বোঝাই একটি ট্রাক রাস্তার ধারে থাকা একটি গাছে সজোরে ধাক্কা মেরেছে। রাস্তার পাশে থাকা সেই গাছটির কোনও ক্ষতি হয়নি। এমনকী নিজের জায়গা থেকে একচুল হেলেও যায়নি গাছটি। তবে গাছের গুঁড়ি বোঝাই বিরাট সেই ট্রাকটির সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গিয়েছে। ওই ছবির ক্যাপশনে সেই আইপিএস অফিসার লিখেছেন, কয়েকশো কাটা গাছ একখানা শিকড় ছড়িয়ে থাকা গাছের বিরুদ্ধে লড়তে পারল না। সব সময় নিজের শিকড়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকুন। সেই ছবির মধ্যে যে এমন একটা মেসেজ লুকিয়ে থাকতে পারে তা অনেকেই আন্দাজ করেননি হয়তো। আসলে অনেক সময়ই চারপাশের ছবি থেকেই জীবনের মানে খুঁজে পাওয়া যায়। এক্ষেত্রেও সেটাই হল।

    আসলে আমরা অনেক সময়ই নিজেদের শিকড়ের কথা ভুলে যাই। আমরা কোথা থেকে উঠে এসেছি, আমাদের অতীত কী, এসব আমরা বর্তমানে এসে ভুলে যাই। কিছু সময় আমরা তো শিকড় ছিঁড়েও বেরিয়ে আসি। তখন আলাদা থেকে স্বাধীনতা উপভোগ করাই আমাদের আসল উদ্দেশ্য হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু শিকড়ের সঙ্গে জুড়ে থাকার ফায়দা অনেক। বিপদ-আপদের সময় শিকড়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা মানুষেরা লড়াইয়ের রসদ পান। এমনকী অনেক বড় বিপদও শিকড়ের সঙ্গে জুড়ে থাকা মানুষকে উপড়ে ফেলতে পারে না। ঠিক যেমন এই গাছটিকে একটুও বিপদে ফেলতে পারেনি এত বড় বিপদ।

    Published by:Suman Majumder
    First published: