corona virus btn
corona virus btn
Loading

হাসপাতালে বন্দি ‘তবলিগ জামাত’ রোগীদের স্বেচ্ছাচার, নগ্ন ঘুরে, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গী করে স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্তা

হাসপাতালে বন্দি ‘তবলিগ জামাত’ রোগীদের স্বেচ্ছাচার, নগ্ন ঘুরে, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গী করে স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্তা
Photo- PTI (Representive)

যৌন উস্কানিমূলক অঙ্গভঙ্গি করা হচ্ছে নার্সদের দেখিয়ে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: তবলিগ জামাতে অংশগ্রহণকারী সদস্যদের বহু মানুষ এখন সারা দেশ জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ৷ আর কিছু কিছু আক্রান্ত মানুষ ও সম্ভাব্য করোনা আক্রান্তদের কোয়ারেন্টাইন  ও আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে ৷ এরমধ্যেই গাজিয়াবাদে হাসপাতাল থেকে এল চাঞ্চল্যকর অভিযোগ ৷

তবলিগ জামাতের বেশ কিছু সদস্য যাঁরা গাজিয়াবাদের হাসপাতালে ভর্তি আছেন তাঁরা স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে রীতিমতো নোংরা ব্যবহার করেছেন ৷ তাঁরা স্বাস্থ্যকর্মীদের দিকে যৌন উস্কানিমূলক নোংরা অঙ্গভঙ্গী করছেন পাশাপাশি নগ্ন হয়ে তাঁরা হাসপাতালের মধ্যেই ঘুরে বেড়াচ্ছেন৷

গাজিয়াবাদের সিএমও স্থানীয় পুলিশ চিঠি দিয়েছেন, তারা জানিয়েছেন তবলিগ জামাত -এ যারা অংশগ্রহণ করেছেন তাদের বেশ কিছুজন গাজিয়াবাদ হাসপাতালে রয়েছেন তাঁরা হাসপাতালে কর্মচারীদের সঙ্গে দুর্বব্যহার করছে ৷  হাসপাতালের নার্সিং স্টাফদের বিরুদ্ধে রোগিদের এই ব্যবহার নিয়ে কথা বলা হচ্ছে ৷

দেখে নিন পুলিশের কাছে দায়ের করা অভিযোগের কপি

গাজিয়াবাদের এমএমজি জেলা হাসপাতাল সিএমও, ‘জামাতি রোগীরা চিকিৎসকদরে তত্বাবধানে রয়েছে তাঁরা সম্ভাব্য করোনা ভাইরাস আক্রান্ত, হাসপাতালে তাদের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৷ আইসোলেশন ওয়ার্ডে থাকায় তারা প্যান্ট না পরেই ঘুরছি ৷ পাশাপাশি নোংরা গান শুনছে ৷ ’

সিএমও আরও জানিয়েছে রোগিরা হাউসকিপিং স্টাফদের কাছে সিগারেট চাইছে পাশাপাশি নার্সদের দিকে নোংরা ইঙ্গিত করছে ৷ সিনিয়র মেডিক্যাল অফিসিয়াল জানিয়েছে যা পরিস্থিতি হচ্ছে তা নার্সিং স্টাফদের জন্য খুবই চাপের ৷

এদিকে এইভাবে দেশে মহামারি আইন জারি হবার পরেও কী করে এত বড় করে ধর্ম সম্মেলন আয়োজন হল তা নিয়ে এখনও কাটাছেঁড়া চলছে ৷ অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন রাজ্য সরকার দ্রুত চিহ্নিতকরণ করে তাদের আইসোলেশন ও টেস্টের ব্যবস্থা করার কাজ চালাচ্ছে ৷ কারণ কমিউনিটি ট্রান্সমিশন আটকাতে এই মানুষদের চিহ্নিতকরণ না করা হলে দেশের সূহ বিপদ হবে এবং মারণ এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা যেখানে দেশে দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে সেখানে পরিস্থিতি আরও খানিকটা নিঃসন্দেহে হাতের বাইরে বেরিয়ে যাবে ৷

 
Published by: Debalina Datta
First published: April 3, 2020, 12:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर