• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • 'কে ইন্ডিয়া গান্ধি ?' যার কথা বলছেন শশী থারুর

'কে ইন্ডিয়া গান্ধি ?' যার কথা বলছেন শশী থারুর

শশী থারুর ইন্দিরা গান্ধিকে ‘ইন্ডিয়া গান্ধি’ বলে উল্লেখ করেন। এই ভুলের জন্য থারুরকে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করছেন নেটিজেনরা

শশী থারুর ইন্দিরা গান্ধিকে ‘ইন্ডিয়া গান্ধি’ বলে উল্লেখ করেন। এই ভুলের জন্য থারুরকে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করছেন নেটিজেনরা

শশী থারুর ইন্দিরা গান্ধিকে ‘ইন্ডিয়া গান্ধি’ বলে উল্লেখ করেন। এই ভুলের জন্য থারুরকে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করছেন নেটিজেনরা

  • Share this:

    #নয়াদিলি: সাধারণত ভারী ভারী ইংরেজি শব্দের ব্যবহারই করে থাকেন শশী থারুর। অনেক সময়তা বোধগম্য হয়ে ওঠেনা সাধারণের কাছে। সেই শশী থারুরের হাত থেকে বেরল এবার ভুল।

    প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করে একটি ট্যুইট করেছেন শশী থারুর। ট্যুইটে তিনি লেখেন '১৯৫৪ সালে মার্কিন মুলুকে নেহরু ও ইন্ডিয়া গান্ধি। দেখুন কীভাবে কোনও PR প্রচার, NRI ম্যানেজমেন্ট বা অতি-উত্তেজিত মিডিয়া সমর্থন ছাড়াই মার্কিন জনতা স্বতস্ফূর্ত ভাবে বড় সংখ্যায় রাস্তায় এসে সমর্থন দিচ্ছে।'

    তিনি ইন্দিরা গান্ধিকে ‘ইন্ডিয়া গান্ধি’ বলে উল্লেখ করেন। এই ভুলের জন্য থারুরকে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করছেন নেটিজেনরা।

    তিনি দাবি করেন, ওই বছর মার্কিন সফরে যাওয়া কংগ্রেসের দুই নেতৃত্বকে ঘিরেও উন্মাদনা যথেষ্টই ছিল। কিন্তু জওহরলাল নেহরু ও ইন্দিরা গান্ধির ওই ১৯৫৬ সালের। এবং ছবিটি মার্কিন মুলুক নয়, সোভিয়েত রাশিয়ার (USSR) ম্যাগনিটোগোরস্ক শহরের।

    পরে তিনি লেখেন যে তাঁকে যে, 'ছবিটি ফরওয়ার্ড করা হয়েছিল। আমাকে বলা হয়েছে, ছবিটি সম্ভবত সোভিয়েত ইউনিয়ন সফরের, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নয়। যদি সেটাও হয়, তাহলেও বার্তার কোনও বদল হচ্ছে না। আসল কথা হল, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীরাও বিদেশে জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন। নরেন্দ্র মোদি সম্মানিত হলে সেটা ভারতেরই সম্মান।’  
    First published: