Home /News /national /

ভাগ্যিস সাক্ষীকে ছোটবেলায় মেরে ফেলা হয়নি, না হলে পদক হতো হাতছাড়া !

ভাগ্যিস সাক্ষীকে ছোটবেলায় মেরে ফেলা হয়নি, না হলে পদক হতো হাতছাড়া !

ব্যাপারটা ঠিক এরকমই ৷ হিসেব-নিকেশ করলে যা পাওয়া যায়, তা হল গোটা হরিয়ানা জুড়ে কন্যা শিশু হত্যা হয়তো সবচেয়ে বেশিমাত্রায় ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: এটাই হয়তো সবচেয়ে বড় বিশ্ময় ৷ যে রাজ্য কন্যা হত্যার জন্য কুখ্যাত ৷ সেই রাজ্যের মেয়েই ভারতের জন্য অলিম্পিক থেকে ছিনিয়ে আনলেন প্রথম পদক!

    ব্যাপারটা ঠিক এরকমই ৷ হিসেব-নিকেশ করলে যা পাওয়া যায়, তা হল গোটা হরিয়ানা জুড়ে কন্যা শিশু হত্যা হয়তো সবচেয়ে বেশিমাত্রায় ৷ একসময় এই ইস্যু সবার সামনে এনে ইউনিয়ন উওম্যান ও চাইল্ড ডেভলপমেন্ট মন্ত্রী মেনেকা গান্ধী সরকারিভাবে জানিয়েছিলেন হরিয়ানায় প্রায় ৭০ টি এমন গ্রাম রয়েছে যেখানে বহু বছর ধরে কন্যা জন্মায় না ! পুত্র সন্তান ও কন্যা সন্তানের অনুপাতটাও সামনে আনেন মেনেকা গান্ধী ৷ অনুপাতটি হল ৭৬২ কন্যা সন্তান ও পুত্র সন্তান ১০০০ ৷ হিসেব অনুযায়ী, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মাতৃ গর্ভেই কন্যা ভ্রুণ নষ্ট করে দেওয়া হয় ৷ হরিয়ানার এই অবস্থা থেকে গোটা দেশই অবগত ৷ নানা প্রোমোশনে, নানা কর্মসূচীর মধ্যে দিয়েও কন্যা হত্যা ব্যধি দূর করা যাচ্ছে না হরিয়ানার অন্দর থেকে ! তবুও সেই অন্দর থেকেই অলিম্পিকের পাড়ি হরিয়ানার মেয়ে সাক্ষী মালিকের ৷ এবারের রিও অলিম্পিকে কুস্তি খেলে ভারতের জন্য প্রথম পদক ছিনিয়ে এনেছেন সাক্ষীই !

    সলমন খান অভিনীত ‘সুলতান’ ছবিতে অনুষ্কা শর্মা ওরফে আরফা চেয়েছিলেন অলিম্পিকে যেতে ৷ সঙ্গে চেয়েছিলেন তার জেতার মধ্যে দিয়েই হয়তো হরিয়ানার অন্দর থেকে ব্যধি দূর হবে ৷ কন্যা হত্যার বদলে, হয়তো বাড়ির মেয়েও ছেলের মর্যাদার বড় হবে ৷ এগিয়ে যাবে৷ সেই বলিউড ছবির গল্পকেই যেন নতুন করে লিখে ফেললেন সাক্ষী মালিক ৷ আরফার মতোই স্বপ্ন নিয়ে অলিম্পিকে গিয়ে ভারতের জন্য প্রথম পদক ছিনিয়ে আনলেন আনলেন তিনি ৷ আর গড়লেন ইতিহাস ৷ হরিয়ানাকে ফের মুখোমুখি জবাব দিলেন, ‘হাম ভি কম নেহি...’

    সাক্ষীর পদক জেতার খবর পেয়ে ট্যুইটারে একের পর ট্যুইট ৷ ট্যুইট করছেন সব মহলের সেলিব্রিটিরা ৷ যেমন অনুষ্কা শর্মা লিখলেন, ‘ইয়ো সে হরিয়ানা কী শেরনি অউর ইন্ডিয়া কি জান...লড়কিয়া লড়কো সে কম নেহি...’ ৷ সাক্ষীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্যুইট করেছেন বিরেন্দ্র সহেবগ, অমিতাভ বচ্চন, আমির খানের মতো বলিউডের তাবড়রা ৷ তবে সবারই ট্যুইটে একটাই কথা, হরিয়ানার কন্যা হত্যার সামাজিক ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে ভাগ্যিস ছোটো থাকতে স্বাক্ষীকে মেরে ফেলা হয়নি, না হলে এবার অলিম্পিকে পদকের সাক্ষী হতো না ভারত !

    হরিয়ানার মোখরা গ্রামে জন্ম হয় সাক্ষী মালিকের ৷ ছোটোবেলা থেকেই কাবাডি, ক্রিকেট খেলতেন, কিন্তু মনে মনে ইচ্ছে ছিল কুস্তিগীর হওয়ার স্বপ্নই ছিল সাক্ষীর ৷ পদক জেতার পর স্বাক্ষী জানিয়েছেন, ‘আমি জানতামই না অলিম্পিক কী জিনিস ৷ আমি শুধু জানতাম ভারতের হয়ে খেললে, প্লেন চড়তে পারব ৷ ১২ বছর লাগল আমার এই লড়াইয়ের জন্য তৈরি হতে ৷ ভারতের জন্য পদক আনতে পেরে সত্যিই গর্বিত ৷’

    First published:

    Tags: 2016 rio olympics, Bangla Khobor, BBengali News, Rio, Sakshi Malik

    পরবর্তী খবর