জনধন যোজনাকে কটাক্ষ করেন অনেকে, এতে ৩৪ কোটির বেশি মানুষ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন: মোদি

  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি:  উন্নয়নের তত্ত্বেই ভোটপ্রচার। আরও বেশি কাজের প্রতিশ্রুতি দিয়েই লোকসভার যুদ্ধ। লোকসভা ভোটের আগে স্পষ্ট হল নরেন্দ্র মোদির অ্যাজেন্ডা। নিউজ18-র রাইজিং ইন্ডিয়ার মঞ্চ থেকেই মোদির বার্তা, সব বিতর্ক পিছনে ফেলে উন্নয়নই তাঁর তুরুপের তাস।

    কংগ্রেস আমলে নীতিপঙ্গত্ব কাটিয়ে নতুন ভাবে তৈরি হচ্ছে দেশ। এই দাবিকে সামনে রেখেই কী ফের ক্ষমতায় ফেরানোর আবেদন রাখবেন নরেন্দ্র মোদি ? সরাসরি না বললেও রাইজিং ইন্ডিয়ার মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর বার্তায় স্পষ্ট হল সেই সম্ভাবনা।

    একদিকে কংগ্রেস আমলের ভারত। অন্যদিকে ২০১৪-র পর পট পরিবর্তন। কী পার্থক্য ? কোথায় তাঁর সাফল্য? সবই তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী ৷দুর্নীতি মোকাবিলা রাইজিংয়ের মঞ্চে এদিন  প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমাকে অনেকেই অপছন্দ করেন, গালাগালি দেন, কারণ আমি দুর্নীতি বন্ধ করেছি ৷ কোথায় যেত টাকা, কারা খেত ৷ ইউপিএ আমলে নীতিপঙ্গুত্ব থেকে দেশকে দ্রুততম বৃদ্ধির পথে নিয়ে গিয়েছে এনডিএ সরকার।’’ এই দাবির সঙ্গেই সামাজিক প্রকল্পকেও মেশান প্রধানমন্ত্রী।

    প্রধানমন্ত্রীর দাবি, ‘‘ এতকাল নীতিহীনতায় ভুগছিল দেশ ৷ বিজেপি সরকারের জমানায় দেশের আর্থিক বৃদ্ধি ‍৫% থেকে বেড়ে ৮% হয়েছে ৷ একের পর এক প্রকল্প গড়েছে সরকার ৷ জনধন যোজনাকে কটাক্ষ করেন অনেকে ৷ এই যোজনায় বহু মানুষ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন ৷ ৩৪ কোটির বেশি মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট হয়েছে ৷ ’’

    মোদি এদিন আরও বলেন,  ইউপিএ-র আমলে ৫ শতাংশ আর্থিক বৃদ্ধি ছিল -- মুদ্রাস্ফীতি এখন অনেক নিয়ন্ত্রণে ৷ বিতর্ক সত্ত্বেও আধার কাজে লাগিয়ে কেন্দ্র লক্ষ্যপূরণে সফল বলেও দাবি নরেন্দ্র মোদির। তাঁর পাল্টা দাবি, রাজনৈতিক চাপানউতোর থাকবেই। তবে ২০১৯ এর নির্বাচনে উন্নয়নের তত্ত্বকে অস্বীকার করা যাবে না কিছুতেই। রাইজিং ইন্ডিয়ার মঞ্চেই তা স্পষ্ট হল।

    First published:

    Tags: Jandhan Yojana, PM Narendra Modi, Rising India Summit 2019