আজ ফের হাতরসে গ্রামে ঢোকার চেষ্টা করবেন রাহুল, ধর্ষকদেরই পাশে উঁচু জাতের পঞ্চায়েত

রাহুল গান্ধি ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধি

আজ অর্থাত্‍ শনিবার ফের হাতরসে ধর্ষিতার গ্রামে ঢোকার চেষ্টা করবেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি৷

  • Share this:

    #হতরস: ধর্ষিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে উত্তরপ্রদেশের হাতরসে ঢুকতে চেয়ে পুলিশের ধাক্কায় মাটিতে পড়ে গিয়েছেন৷ আজ অর্থাত্‍ শনিবার ফের হাতরসে ধর্ষিতার গ্রামে ঢোকার চেষ্টা করবেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি৷ রাহুলের সঙ্গে থাকবেন ৪০ থেকে ৫০ জন কংগ্রেস সাংসদ৷ থাকবেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরাও৷ গত বৃহস্পতিবার রাহুল গান্ধি ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরা ওই গ্রামে ঢোকার চেষ্টা করেছিলেন৷ কিন্তু উত্তরপ্রদেশ পুলিশ তাঁদের আটক করে ও এসকর্ট করে দিল্লি পাঠিয়ে দেয়৷

    হতরসে ১৯ বছরের দলিত যুবতীকে নৃশংস ভাবে ধর্ষণের ঘটনায় ইতিমধ্যেই গোটা দেশ প্রতিবাদ মুখর৷ উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের পদত্যাগ দাবি করেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরা৷ অন্যদিকে হাতরসের গ্রামের তথাকথিত সমাজের উচ্চশ্রেণির সদস্য নিয়ে গঠিত পঞ্চায়েত অভিযুক্ত ধর্ষকদেরই পক্ষে দাঁড়িয়েছে৷ একই সঙ্গে এই অপরাধের সিবিআই তদন্তেরও দাবি করা হয়েছে৷

    মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, মহিলাদের সুরক্ষার বিষয়ে উত্তরপ্রদেশ সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ৷ অভিযুক্তদের কড়া শাস্তি হবে৷ ইতিমধ্যেই এসপি, ডিএসপি সহ ৫ পুলিশকর্তাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে৷

    যোগী আদিত্যনাথের পদত্যাগ দাবি করছেন ভীম আর্মির প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদও৷ তাঁর কথায়, 'যতক্ষণ না যোগী আদিত্যনাথ পদত্যাগ করছেন এবং সুপ্রিম কোর্টে মামলার বিচার হবে, ততক্ষণ হতরসের ধর্ষিত যুবতী ন্যায় বিচার পাবেন না৷ এই ধর্ষকদের দ্রুত কঠিন সাজা হওয়া উচিত, যাতে অন্যান্যরা এই ধরনের অপরাধ করার আগে দু বার ভাবে৷'

    উত্তরপ্রদেশে সরকার ও পুলিশের সমালোচনা করেছেন বিজেপি নেত্রী উমা ভারতীও৷ তিনি উত্তরপ্রদেশ সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন, হাতরসের ওই গ্রামে সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদদে ঢুকতে দেওয়া হোক৷ তাঁদের ধর্ষিত যুবতীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়ার অনুমতি দেওয়া উচিত৷

    Published by:Arindam Gupta
    First published: